আসানসোলে ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় মুসলিম যুবককে মারধর-ছিনতাই, ঘটনায় চাঞ্চল্য আসানসোলে

Spread the love

নিউজ ডেস্ক,অয়ন বাংলা , আসানসোল:- ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় এক মুসলিম যুবককে মারধরের অভিযোগ উঠল অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল আসানসোলের হীরাপুরের কালাঝরিয়া রোডে। পেশায় ফেরিওয়ালা আক্রান্ত ওই যুবকের নাম মহম্মদ ইসরার হুসেন ওরফে রিজওয়ান। প্রহৃত যুবকের অভিযোগ, মারধরের পাশাপাশি তাঁর সমস্ত টাকা-পয়সা ছিনতাই করেছে দুষ্কৃতীরা। ইতিমধ্যে ঘটনার অভিযোগ দায়ের হয়েছে হীরাপুর থানায়। গুরুতর জখম অবস্থায় ইসরার হুসেন ভরতি হন আসানসোল জেলা হাসপাতালে।

জানা গিয়েছে, উত্তর থানার মুসদ্দি মহল্লার বাসিন্দা মহম্মদ ইসরার হুসেন গ্রামে গ্রামে চাদর ফেরি করে বেড়ায়। ঘটনার দিন কালাঝরিয়া গ্রামে চাদর ফেরি করতে গিয়েছিলেন তিনি। নেহেরু পার্কের কাছে ফাঁকা রাস্তায় বাইকে চেপে এসে তাঁর পথ আটকায় দু’জন অজ্ঞাত যুবক। তাঁর নাম জিজ্ঞেস করে৷ এরপর নাম বলতেই ইসরার হুসেনকে জাত তুলে গালিগালাজ করে তারা। ইসরার হুসেনের অভিযোগ, প্রথমে জোর করে তাকে ‘জয় শ্রীরাম’ বলাতে চায় দুষ্কৃতীরা৷ কথা মানতে অস্বীকার করলে, তাঁকে প্রচণ্ড মারধর করে দুষ্কৃতীরা। পকেট থেকে সাড়ে ৪ হাজার টাকা ছিনতাই করা হয়। কোনওক্রমে বাসে উঠে প্রাণ বাঁচান তিনি।
এলাকায় ফিরে সমস্ত ঘটনাটা স্থানীয় কাউন্সিলরকে জানান প্রহৃত মহম্মদ ইসরার হুসেন৷ তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোলাম সরবর৷ তিনি বলেন, ‘‘ঘটনার খবর পেয়ে আমরা ওই যুবককে থানায় নিয়ে যাই। অভিযোগ দায়ের করাই। এরপর হাসপাতালে ভরতি করাই। এই ঘটনা খুবই নিন্দনীয়। দুষ্কৃতীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করুক পুলিশ।’’ আক্রান্তের ভাই মহম্মদ শাহাবাজ বলেন, ‘‘এই ধরণের ঘটনা আসানসোলে আগে কখনও ঘটেনি। দুষ্কৃতীরা ধরা পড়ুক, এটাই চাই।’’ ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্তে নেমেছে হীরাপুর থানার পুলিশ। তাঁরা জানান, ‘‘আক্রান্তের সঙ্গে কথা বলে, হামলাকারীদের সম্পর্কে যে তথ্য পাওয়া গিয়েছে, সেই সূত্রে ধরেই তদন্ত শুরু হয়েছে।’’ জানা গিয়েছে, দুষ্কৃতীরা রাত পর্যন্ত ধরা না পড়ায়, এলাকার লোকজন থানায় গিয়ে বিক্ষোভ দেখান। বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি বেধে যায় পুলিশের। পরে কোনওক্রমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

কৃতজ্ঞতা স্বীকার :- প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.