সম্প্রীতির নজর দিল্লীতে ছয় জনের প্রাণ বাঁচিয়ে প্রেমকান্ত বাঘেল নিজেই মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে

Spread the love

ওয়েব ডেস্ক:- মানবতা আজও বিদ্যমান ,ভারতীয় সংস্কৃতি আজো হারিয়ে যায় নি । এখনও মানুষটির নাম প্রেমকান্ত বাঘেল। যিনি গতকাল দিল্লীর অস্থির পরিস্থিতির শিকার হয়ে মৃত্যুর সাথে লড়ছেন।

মুসলিম প্রতিবেশীর বাড়িতে কারা যেন আগুন লাগাচ্ছে। শুনে আর ঠিক থাকতে পারেননি, পারেননি নির্লিপ্ত হয়ে বসে থাকতে। তিনি জানতেন এই উন্মত্ত জনতা সো কলড ‘ধর্ম কে বাঁচানো’-র জন্য কি না করতে পারে।

ছুটে গেছিলেন আটকাতে। ততক্ষনে আগুনের লেলিহান শিখা অনেকটাই উঁচুতে। জীবনের তোয়াক্কা না করেই একে একে বার করে আনেন ৬ জন কে। যার মধ্যে ছিলেন এক ৭০ বছরের বৃদ্ধা।

শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে যাওয়া প্রেমকান্তকে নিয়ে যাওয়ার মতো কোনও গাড়ি পাওয়া যায়নি। এম্বুলেন্স ও ডাকা হয়েছিল, কিন্তু এসে পৌঁছয়নি। সারারাত ওইভাবে থাকার পরে সকালে জি টি বি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বারবার তার মুখে শোনা গেছে, তিনি খুশী তিনি ৬ জনের প্রাণ বাঁচাতে পেরেছেন বলে।

এই তো আমার ভারতবর্ষ। এই তো আপনার ভারতবর্ষ৷ আপনি ও এরকম নিদর্শন পেলেই বেশী বেশী ছড়ান। আপনি হিংসা ছড়াতে না চাইলেও কিছু বায়াসড মিডিয়া তার হেডলাইন দিয়ে ও কিছু মূর্খ, স্বার্থপর মানুষ হিংসা ছড়াবে। তাই আপনার ভালবাসা ছড়ানো প্রয়োজন, দ্বেষ মুছতে, দেশ কে বাঁচাতে।

দরকারে নিজের জীবন দিয়েও এই দেশের সর্ব ধর্মের ভ্রাতৃত্ব রক্ষা করবো – এ আমার অঙ্গীকার। কারন এটা আমার জন্মভূমি জন্মদাত্রী মা। এবং ওরাও আমার মায়ের সন্তান, আমারই ভাই ও বোন। দাদা হিসেবে এটুকু কর্তব্য তো আমার পালন করা উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.