জেল থেকে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি ডাঃ কাফিল খানের দেশের স্বার্থে করোনা মোকাবিলায় মানুষের সেবা করতে

Spread the love

নিউজ ডেস্ক:- ডা কাফিল খান মানবতার এক নাম ।যখন ই বিপদ সমসগযাসঙ্কুল তখনই সেবায় ঝাপিয়ে পড়তেন। আজ তিনি জেলে ,কিন্তু করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা সেবা করার জন্য মন ছটপট করেছেন । তাই প্রধানমন্ত্রী কে চিঠি লিখে সেবা করার অনুমতি চাইছেন । মথুরা জেল থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি পাঠালেন বন্দী ডাঃ কাফিল খান। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে আবেদন জানিয়েছেন কোভিড-১৯ ভাইরাস যেভাবে দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়ছে এই সময়ে জাতিকে সেবা করার জন্য তাকে জেল থেকে মুক্তি দেওয়া হোক। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানান, করোনাভাইরাস তৃতীয় পর্যায়ে ভারতে প্রায় ২.৪ মিলিয়ন লোক কে আক্রমণ করতে পারে। এই অবস্থায় মানুষের জীবনযাত্রা কে রক্ষা করতে হলে বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করা প্রয়োজন। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে কতকগুলি পরামর্শ দিয়েছেন।

ডক্টর কাফিল খান বর্তমানে মথুরা জেলে বন্দি। তাকে মুম্বাই থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি ১২ ই ডিসেম্বর আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে সিটিজেনশিপ আমেন্ডমেন্ট বিলের বিরুদ্ধে বক্তব্য রেখেছেন। ডাঃ খানের বিরুদ্ধে ১২ই ফেব্রুয়ারি ন্যাশনাল সিকিউরিতি অ্যাক্ট বা এন এস এ ধারায় কেস দেওয়া হয়েছে। ডাক্তার কাফিল খান উত্তরপ্রদেশে ইতিপূর্বে জেলে গিয়েছেন।জেল থেকে মুক্তি পাওয়ার কয়েক মাসের মধ্যেই তাকে আবার জেলে জেতে হয়।

সরকার তার বিরুদ্ধে বারবার অভিযোগ আনছে কিন্তু ডাঃ কাফিল খান মানুষের স্বার্থে, দেশের স্বার্থ, দেশের এই বিপদে মানুষের পাশে দাঁড়ানো উচিত বলে মনে করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ১৯ শে মার্চ চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন দেশের এ ই জরুরী কালীন সময়ে কি কি পদক্ষেপ নেওয়া উচিত।

তিনি বলেন শুধুমাত্র জনজীবন স্তব্ধ করে দিয়ে কাজ হবে না। আমাদেরকে অবিলম্বে প্রতি জেলায় একটি করে নতুন টেস্ট সেন্টার গড়ে তুলতে হবে। যাতে দ্রুত সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের পরীক্ষা করা যায। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে আরও জানিয়েছেন প্রতি জেলায় কম পক্ষে ১০০০ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ওয়ার্ড নির্মাণ করা উচিত এবং নতুন ভাবে আই সি ইউ গড়ে তোলা দরকার। কর্মীসংখ্যা যথেষ্ট নয় তাই তিনি প্রধানমন্ত্রীকে পরামর্শ দিয়েছেন যে প্যারামেডিকেল কোর্স এর সঙ্গে যুক্ত ডাক্তার এবং নার্সদের কে প্রশিক্ষণ দিয়ে আপাতত এই কাজের উপযোগী করে গড়ে তোলা যেতে পারে। তিনি সমস্ত পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য সরকার ও প্রশাসন এর মধ্যে সমন্বয় গরে তোলা জরুরি বলে মনে করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.