কলকাতাকেও একটা রাজধানী করা হোক, নেতাজির জন্মদিবসে দাবি মমতার

Spread the love

কলকাতা: নেতাজির জন্মদিবস পালনের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করলেন, দেশের চার প্রান্তে চারটি রাজধানী করা উচিত। শুধু দিল্লি কেন, কলকাতাকেও একটা রাজধানী করা উচিত। যা নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল চর্চা।

সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। রোজই বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ। এবার যেন দড়ি টানাটানি শুরু হয়েছে নেতাজির ১২৫তম জন্মদিবস পালন ঘিরেও। যে উপলক্ষ্যে আজই কলকাতায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর সকাল থেকেই বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখান থেকে কেন্দ্রকে নিশানা করলেন তিনি। রেড রোড থেকে মমতা বলেন, ‘নেতাজির ফৌজে সর্বধর্মের মানুষ ছিলেন। দেশের হয়ে লড়ছি, এটাই ছিল ওঁর সিদ্ধান্ত। ইংরেজদের ডিভাইড অ্যান্ড রুলের বিপক্ষে ছিলেন তিনি।’ মমতা যোগ করেন, ‘নেতাজির জন্মদিনকে জাতীয় ছুটির দিন বলে ঘোষণা করতেই হবে। আজও নেতাজির জন্মদিন জাতীয় ছুটির দিন বলে ঘোষণা হয়নি। নেতাজির প্ল্যানিং কমিশন কেন তুলে দেওয়া হল? নীতি আয়োগ তো প্ল্যানিং কমিশন রেখেও করা যেত। আমরা আজাদ হিন্দ স্মারক স্তম্ভ তৈরি করব।’

 

কেন্দ্রকে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, ‘বহু টাকায় বিমান কিনছেন, নতুন সংসদ ভবন গড়ছেন। এত টাকা এই খাতে ব্যয়ের দরকার ছিল না।’ আজ নেতাজির জন্মবার্ষিকী পালনে একমঞ্চে থাকবেন মোদি-মমতা। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে ২টি গ্যালারির হবে উদ্বোধন। সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত মুখ্যমন্ত্রীও। তবে গেলেও লাইনে দাঁড়াবেন না, জানালেন মমতা। শনিবার সকালে নেতাজি ভবনের অনুষ্ঠানে কেন্দ্রকে নিশানা মুখ্যমন্ত্রীর। মমতা বলেন, ‘দয়া ভিক্ষার ওপর নির্ভর করেন না নেতাজি। ভোটের আগে একবার নয়, চিরকাল নেতাজি পরিবারের  সঙ্গে থাকি।’

সৌজন্য :- আনন্দ বাজার পত্রিকা

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.