তৃণমূল ভবনে মুর্শিদাবাদ জেলার নেতাদের সঙ্গে বৈঠক, মুর্শিদাবাদ জেলায় ২২-০ করার ডাক দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমাে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ,

Spread the love

নিউজ  কলকাতা: – আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মুর্শিদাবাদ জেলায় ২২-০ করার ডাক দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমাে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনে মুর্শিদাবাদ জেলার নেতৃবর্গের সঙ্গে বৈঠক করলেন তিনি। যারা এই দিনের বৈঠকে হাজির হতে পারেননি তাদের সঙ্গে ভার্চুয়াল কথা বলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচনের আগে রণকৌশল বেঁধে দেন তিনি। পাঁচজনের স্টিয়ারিং কমিটি গঠন করা হয় এদিনের বৈঠক থেকে। ওই কমিটিতে রয়েছেন মন্ত্রী জাকির হােসেন, সাংসদ আবুতাহের খান , মহঃ সােহরাব, বিধায়ক সুব্রত সাহা ও সাংসদ খলিলুর রহমান। তৃণমূল সূত্রের খবর, জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের উদ্দেশ্যে এ দিন দলনেত্রী বলেন, এখন থেকেই বিধানসভা নির্বাচনের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে সকলকে।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, বিজেপি মুর্শিদাবাদে ৩ নম্বরে যাবে। দলের জেলার বিধায়কের উদ্দেশ্যে মমতা বলেন, এখন নিজ নিজ এলাকায় মাটি কামড়ে পড়ে

 

সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জীর নির্দেশে মুর্শিদাবাদ জেলার সংগঠনকে মজবুত করতে একটি কোর কমিটি গঠন করা হয়েছে। জেলার ২২টি বিধানসভাকেই পাখির চোখ করার নির্দেশ দিয়েছেন দলনেত্রী। এই কমিটিতে রয়েছেন ১) আবু তাহের খান, ২)খলিলুর রহমান, ৩)মইনুল হাসান, ৪)জাকির হোসেন, ৫)সুব্রত সাহা, ৬)মোঃ সোহরাব হোসেন।

 

বেশ কিছু দিন ধরে মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কর্মী সমর্থক দের মধ্যে গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব চলছিল। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী হুমায়ুন কবির, জেলা সভাপতি আবু তাহের খানের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন। অন্য দিকে জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেন ও আবু তাহের খান – এই দুই গোষ্ঠীর নামে জেলার রাজনীতি সরগরম। আর তাই ভোটের আগে দলের অভ্যন্তরীণ বিরোধ মেটাতে পদক্ষেপ নেন স্বয়ং মমতা। জেলার নেতৃত্বদের ডেকে পাঠান গত ২১শে জানুয়ারি। সেই মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হয় জেলায় একটি কোর কমিটি গঠনের।
তবে তৃণমূলের এক কর্মীর কথায়, এটাতেও কি সমস্যার সমাধান হবে তার প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.