সূর্যোদয়ের আগেই ফাঁসি হয়ে গেল নির্ভয়ার চার ধর্ষকের

Spread the love

নিউজ ডেস্ক :- ফাঁসি হয়ে গেল নির্ভয়ার চার ধর্ষকের, সাত বছর তিন মাসের মাথায় মিলল বিচার।আজ কাকভোরেই ফাঁসি হয়ে গেল। গত সাতবছর ধরে যেমন বিচারের জন্যে লড়াই চালিয়েছে নির্ভয়ার মা। তেমনই বাঁচার জন্যে মরিয়া লডা়ই চালিয়ে গিয়েছে নির্ভয়ার ধর্ষকদের আইনজীবী এপি সিংহ। তাঁকে শেষমেষ আদালতও বলে, আপনি আগুন নিয়ে খেলছেন।
বিচার পেল নির্ভয়া। সাত বছর তিন মাস চারদিনের মাথায় বিচার পেলেন দিল্লির ধর্ষিতা। শুক্রবার সকাল সাড়ে পাঁচটারর সময় তিহার জেলে নির্ভয়ার চার ধর্ষক মুকেশ সিংহ, বিনয় শর্মা, পবন গুপ্ত এবং অক্ষয় সিংহর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হল।

বৃহস্পতিবার ভোররাত পর্যন্ত ফাঁসি রদের জন্যে লড়াই চালিয়ে যায় নির্ভয়ার ধর্ষকরা। কিন্তু শেষ মুহূর্তেও তাঁদের খালি হাতে ফেরায় সুপ্রিম কোর্ট।তিহাড় জেলে রাতে খাবার খায়নি পবন-মুকেশরা। ভোর ৪.৩০ নাগাদ দোষীদের শারীরিক পরীক্ষা হয়। প্রার্থনার জন্য ১০ মিনিট সময় দেওয়া হয়। তার পরে তাদের ফাঁসির মঞ্চে নিয়ে যান ৬ নিরাপত্তারক্ষী।

নির্ভয়া কাণ্ডে জড়িত ছিল মোট ছয় জন। একজন নাবালক থাকার দরুণ নিস্কৃতি পায়। অন্য এক অপরাধী রাম সিংহ জেলের ভিতর আত্মহত্যা করে।

গত সাতবছর ধরে যেমন বিচারের জন্যে লড়াই চালিয়েছে নির্ভয়ার মা। তেমনই বাঁচার জন্যে মরিয়া লডা়ই চালিয়ে গিয়েছে নির্ভয়ার ধর্ষকদের আইনজীবী এপি সিংহ। তাঁকে শেষমেষ আদালতও বলে, আপনি আগুন নিয়ে খেলছেন।

সি২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর দিল্লির রাস্তায় চলন্ত বাসে ধর্ষণ করা হয়েছিল নির্ভয়াকে। নির্যাতনের পরে তাঁর দেহটাকে ছু়ঁড়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। ১৩ দিন মরিয়া লড়াই চালিয়েছিলেন নির্ভয়া। অপরাধীদের নামও তিনি বলেন।২৯ ডিসেম্বর তাঁর মৃত্যু হয়।

শুক্রবার সকালে এই চার ধর্ষকের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য দিনদয়াল উপাধ্যায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে। ময়নাতদন্তের পর তাঁদের দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.