নোবেল জয়ী অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন মুসলিমরা ভারত দখল করবে এই ধারণা ভিত্তিহীন

Spread the love

ওয়েবডেস্ক:- গোটা দেশ আজ বিপদে এই রকম নোবেল জয়ের পর এই প্রথম নিজের শহর কলকাতায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। সংবাদমাধ্যমের সামনে এসেই রীতিমতো সুর চড়ালেন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধেই। না, সরাসরি কোনও রকম আক্রমণ না করলেও ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিলেন যে কেন্দ্রীয় নীতির সমর্থন তিনি করছেন না। তাঁর স্পষ্ট কথা, সংখ্যালঘুরা একদিন এ দেশ দখল করে নেবে এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল এবং ভ্রান্ত।

অভিজিতের কথায়, ‘এদেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়রা একদিন দেশ দখল করে নেবে এটা সবচেয়ে বড় ভুল ধারণা। ভারত এবং আমেরিকার সংখ্যালঘুদের মধ্যে মিল হল তারা দুজনেই অর্থনৈতিক এবং শিক্ষাগত দিক থেকে বঞ্চিত। তাই তারা যে একদিন দেশ দখল করব এই ভয়টা পাওয়ার কোনও যুক্তি বা অর্থই থাকতে পারে না। মুসলিমরা একদিন ভারতে রাজ করতে পারে এই ধারণা আমি মানি না।’ এমন মন্তব্য করে যে তিনি বিজেপি সরকারের দিকেই আঙুলটা তুললেন তা পরিস্কার।

ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগ করার অভিযোগ অনেক আগে থেকেই উঠছে বিজেপি ওপর। পাশাপাশি, গেরুয়া সমর্থকদের থেকে একাধিকবার শুনতে পাওয়া গিয়েছে, মুসলিমরা দেশ দখল করতে চায়, তাই ভারতকে হিন্দুরাষ্ট্র হতে হবে। বিরোধীরাও এর বিরুদ্ধে সরব হয়েছে। বর্তমানে নাগরিকত্ব আইন এবং নাগরিকপঞ্জীর উল্লেখ বিতর্ককে আরও বাড়িয়েছে। অধিকাংশের মত, মুসলিম তাড়াতে এবং দেশে ধর্মের প্রেক্ষিতে বিভাজন করতেই বিজেপি সিএএ-এনআরসি এনেছে। এবার নোবেলজয়ী বাঙালির সংখ্যালঘুদের নিয়ে মন্তব্য এই বিষয়ে যথেষ্ট তাৎপর্য সৃষ্টি করছে।

উল্লেখ্য, এর আগে নোবেল পাওয়াপ বিষয় এবং দেশের অর্থনৈতিক সেক্টর নিয়েও বড় মন্তব্য করেছিলেন অভিজিৎ। বলেছিলেন, এদেশে থাকলে তিনি নোবেল পেতেন না কারণ এখানে সিস্টেমের অভাব। পাশাপাশি জানিয়েছিলেন, অর্থনৈতিক সেক্টর নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের কিছুই করার ক্ষমতা নেই, পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। দুটি ক্ষেত্রেই তাঁর নিশানায় ছিল কেন্দ্রীয় সরকার। এবার ধর্ম নিয়ে মন্তব্য করেও মোদী-শাহকে নিশানায় নিলেন নোবেলজয়ী বাঙালি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.