লোকসভা ভোটের উল্টো ফল রাজস্থানে কংগ্রেসের জয়জয়াকার

Spread the love

নিউজ ডেস্ক,অয়ন বাংলা:- লোকসভা ভোটের উল্টো ফল রাজস্থানে , লোকসভায় রাজ্যে শূন্য হাতে ফিরতে হয়েছিল কংগ্রেসকে। ২৫ টি আসনের সবকটিই গিয়েছে বিজেপির ঝুলিতে। যা নিয়ে রীতিনমতো অন্তর্দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে রাজস্থানের কংগ্রেস শিবিরে। মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট এবং উপমুখ্যমন্ত্রী শচীন পাইলটের মধ্যে যে ঠাণ্ডা লড়াই আগে থেকেই চলেছিল, সেই দ্বন্দ্বও বেড়েছে। পঞ্চায়েতের উপনির্বাচনে তাই, কংগ্রেস খারাপ ফল করবে বলেই মনে করছিলেন বিশেষজ্ঞরা। এমনকী প্রদেশ কংগ্রেস নেতারাও পঞ্চায়েত নির্বাচনে ভাল ফল করার ব্যপারে আশাবাদী ছিল না। অথচ, ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, বিজেপিকে অনেকটাই পিছনে ফেলে দিয়েছে কংগ্রেস শিবির।
পঞ্চায়েত সমিতি ও জেলা পরিষদের উপনির্বাচনে মোট ৭৪ আসনের মধ্যে ৩৯টি আসনেই জিতেছে কংগ্রেস। বিজেপির দখলে গিয়েছে ২৯টি। বাকি আসনগুলি জিতেছে নির্দলরা। কংগ্রেসের দাবি, নির্দলদের মধ্যেও অন্তত ৬ জন জনপ্রতিনিধি তাদের সমর্থন করবেন। এদিকে, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতেছেন আরও ১৫ জন। যাদের মধ্যে ৮জন কংগ্রেস প্রার্থী, দু’জন বিজেপির এবং পাঁচজন নির্দল প্রার্থী। জেলা পরিষদের ৯টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস জিতেছে ৭টি। বিজেপি জিতেছে একটিমাত্র আসন। একটি আসন গিয়েছে নির্দল প্রার্থীর দখলে।
লোকসভার ব্যর্থতার পর পঞ্চায়েতের এই সাফল্য রাজস্থান প্রদেশ কংগ্রেসকে চাঙ্গা করেছে, এ বিষয়ে সন্দেহ নেই। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা রাজস্থানের উপমুখ্যমন্ত্রী শচীন পাইলট বলেন, ” এই উপনির্বাচনগুলি গোটা রাজ্যে হয়েছে। সুতরাং বলাই যায় মানুষ আমাদের সরকারের উপর আস্থা রাখছে। আমি সকল কর্মী এবং সমর্থকদের ধন্যবাদ জানায়।”
এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, লোকসভা ভোটের পর কর্ণাটকের স্থানীয় নির্বাচনেও চমকপ্রদ সাফল্য পায় কংগ্রেস। কর্ণাটকের বিভিন্ন স্তরের পুরসভার মোট ১,৩৬১ আসনে নির্বাচন হয়েছিল। এই আসনগুলির মধ্যে প্রায় ৪২ শতাংশ গিয়েছে কংগ্রেসের দখলে। হাত শিবির দখল করেছে ৫০৯টি আসন। সেখানে বিজেপি নেমে গিয়েছে চারশোরও নিচে। লোকসভার পর পরপর দুটি রাজ্যের স্থানীয় নির্বাচনে জয় চমকে দিচ্ছে বিশেষজ্ঞদেরও। এই নিয়ে দেখা দিচ্ছে অনেক প্রশ্ন ,নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.