করোনা আটকাতে এবার রাজস্থান লকডাউন ঘোষণা করল

Spread the love

ডিজিটাল ডেস্ক:- একের পর এক রাজ্য,ঘোষণা করে চলেছে লক ডাইন। মহারাষ্ট্র ,পাঞ্জাব ,ওড়িষ্যার পর এবার রাজস্থান লক ডাউন
ঘোষণা করল। সংক্রমণ রুখতে মরিয়া ভারত। সেই উদ্দেশে রবিবার সকাল সাতটা থেকে রাত ন’টা পর্যন্ত জনতা কারফিউ পালন করা হচ্ছে। এর চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে ৩১ মার্চ পর্যন্ত রাজস্থানে লকডাউন ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। সেই পথে হেঁটে রবিবার পাঞ্জাবেও সম্পূর্ণ লকডাউনের ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং।ফলে ৩১ মার্চ পর্যন্ত রাজ্যে বন্ধ থাকবে সমস্ত পরিষেবা। শুধুমাত্র সবজি, দুধ এবং ওষুধ দোকান-সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দোকানগুলিকে ছাড় দেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, রাজ্যের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত নেন গেহলট। লকডাউন প্রসঙ্গে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এই সময়ে সকল সরকারি অফিস, মল, কারখানা, গণপরিবহন ইত্যাদি বন্ধ থাকবে।” জানা গিয়েছে, রাজ্যে কোভিড-১৯ জীবাণু ২৫ জন ব্যক্তির শরীরে মিলেছে। আরও ৪০ জন রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছেন। শনিবার ৮০ জনেরও বেশি ব্যক্তি ইতিবাচক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে রাজস্থান সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বেশ কয়েকটি রাজ্য মহামারি রুখতে যুদ্ধকালীন তৎপরতা শুরু হয়েছে। তার মধ্যে রাজস্থান অন্যতম। এতদিন আংশিক বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। এবার সম্পূর্ণ লক ডাউন করা হল। একইপথে হেঁটে রাজ্য লকডাউন ঘোষণা করল পাঞ্জাব সরকারও।

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, লক ডাউনের সময় রাজ্যের মানুষের খাবারের অভাব হবে না। যারা জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্পের অন্তর্গত তাঁদের মে মাস পর্যন্ত বিনামূল্যে গম সরবরাহ করা হবে। এমনকী দৈনিক মজুর, রাস্তার দোকানদার জন্য বিনামূল্যে খাবারের প্যাকেট দেওয়ার কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজস্থানই দেশের প্রথম রাজ্য যেখানে সম্পূর্ণভাবে লক ডাউন করা হল। পাশাপাশি ওড়িশা ও তেলেঙ্গানার কিছু অংশ লকডাউন করা হল।

রাজ্যের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত নেন গেহলট।
রাজ্যে কোভিড-১৯ জীবাণু ২৫ জন ব্যক্তির শরীরে মিলেছে।
৮০ জনেরও বেশি ব্যক্তি ইতিবাচক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে রাজস্থান সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.