৯,৩৭১ কোটি টাকা রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলিকে ফিরিয়ে দিল ইডি বিজয় মালিয়া, মেহুল, নীরব মোদিদের কাছ থেকে

Spread the love

ওয়েব ডেস্ক :-   আজ অবধি দেশে ফেরানো যায়নি তিন পলাতক শিল্পপতি বিজয় মালিয়া, মেহুল চোকসি ও নীরব মোদিকে। তিনজনের কারণে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলির ক্ষতির পরিমাণ ২২ হাজার ৫০০ কোটি টাকারও বেশি। আজ তিনজনের মোট ৯ হাজার ৩৭১ কোটি টাকা জমা পড়ল ব্যাংকে। এর মাধ্যমেই আংশিক ক্ষতিপূরণ হবে ব্যাংকগুলির। ইতিমধ্যেই ওই তিন শিল্পপতির মোট ১৮ হাজার ১৭০ কোটি টাকার সম্পতি বাজেয়াপ্ত করেছে ইডি। যা ব্যাংকগুলির মোট ক্ষতির প্রায় ৮০ শতাংশ। বুধবার ইডির তরফে জানানো হয়েছে কেবল সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করাই নয়, সেই সঙ্গে শেয়ারের গুরুত্বপূর্ণ ৯ হাজার ৩৭১ কোটি ১৭ লক্ষ টাকা এবার ফিরিয়ে দেওয়া হল রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ও কেন্দ্রীয় সরকারকে।

তিন পলাতক শিল্পপতির কারণে ব্যাংকগুলিকে মোট ২২ হাজার ৫৮৫ কোটি ৮৩ লক্ষ টাকার ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছিল। তিনজনকেই দেশে ফেরানোর সব রকম চেষ্টা করা হলেও এখনও সাফল্য আসেনি। তবে এরই মধ্যে ৯ হাজার ৩৭১ কোটি টাকা ফেরত পাওয়ায় ব্যাংকগুলি কিছুটা হলেও স্বস্তি পাবে। বিজয় মালিয়া এখন রয়েছেন ব্রিটেনে। তাঁকে ভারতের হাতে প্রত্যর্পণ করার দাবি জানিয়েছে সরকার। তবে এখনও সেই আরজিতে সবুজ সংকেত না মেলায় ফেরানো যায়নি একদা কিংফিশারের কর্ণধারকে। তবে সম্প্রতি যে পলাতক শিল্পপতিকে নিয়ে তুমুল শোরগোল পড়ে, তিনি মেহুল চোকসি। অ্যান্টিগুয়া থেকে কিউবায় পালানোর পথে ডোমিনিকায় ধরা পড়েন চোকসি। তারপর সেখানেই বন্দি রয়েছেন তিনি। তাঁকে দেশে ফেরানোর প্রাথমিক প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলেও আশা ছাড়েননি ভারতীয় গোয়েন্দারা। শীঘ্রই তাঁকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

আরেক পলাতক নীরব মোদি পিএনবি কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত। তিনি আবার সম্পর্কে মেহুল চোকসির ভাইপো। দেশ থেকে ইংল্যান্ডে পালিয়ে গিয়েও অবশ্য শেষরক্ষা হয়নি। আপাতত সেখানকার শ্রীঘরে রয়েছেন তিনি। তাঁরও দেশে ফেরার সম্ভাবনা ক্রমেই জোরাল হচ্ছে বলেই ধারণা ওয়াকিবহাল মহলের।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.