এস পি কে হুমকি, একাধিক ধারায় মামলা পুলিশের শুভেন্দুর বিরুদ্ধে

Spread the love

নিউজ ডেস্ক :-  প্রকাশ্য সভা থেকে সোমবার পুলিশের উদ্দ্যেশে হুমকি দেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় ভারতীয় জনতা পার্টির সমর্থক ও কার্যকর্তাদের উপর তৃণমূল কংগ্রেস এর দুষ্কৃতীদের দ্বারা বর্বরোচিত আক্রমণ, পুলিশের নিষ্ক্রিয়তা এবং বিভিন্ন মিথ্যে মামলা দিয়ে দলের কার্যকর্তাদের গ্রেফতার করার প্রতিবাদে সোমবার তমলুকের নিমতৌড়ীতে এস.পি অফিস-এর সামনে বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সেখান থেকেই পুলিশ সুপার থেকে শুরু করে নীচু তলার পুলিশ কর্মীদের উদ্দ্যেশেও কড়া হুঁশিয়ারি দেন শুভেন্দু অধিকারী। ‘এমন কাজ করবেন না যাতে কাশ্মীরে গিয়ে ডিউটি করতে হয়।’ বলেও হুঁশিয়ারি দেন বিরোধী দলনেতা।

আর এবার এরপরই শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে স্বতো:প্রণদিত মামলা রুজু পুলিশের। মামলা রুজু তমলুক থানায়। সরকারি কাজে বাধা, কোভিড বিধি উপেক্ষা করে জমায়েত, পুলিশের ফোনে আড়ি পাতা সহ একাধিক অভিযোগে মামলা দায়ের পুলিশের। সোমবার ওই বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে নাম না করে এসপি-র উদ্দ্যেশে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘এখানে একটি বাচ্চা ছেলে এসপি হয়ে এসেছেন। আমি তাঁকে বলতে চাই আপনি কেন্দ্রীয় সরকারের অফিসার। এমন কাজ করবেন না যাতে কাশ্মীরের অনন্তনাগ বা বারমুলায় গিয়ে ডিউটি করতে হয়।’ পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, ‘ভাইপোর অফিস থেকে যাঁরা ফোন করেন তাঁদের প্রত্যেকের কল রেকর্ড আমার কাছে রয়েছে। তাই সতর্ক হন। আপনাদের হাতে যদি রাজ্যের সরকার থাকে, তবে আমাদের হাতে কেন্দ্রের সরকার আছে।’ বলেও হুঁশিয়ারি দেন শুভেন্দু অধিকারী। আর সেই পরিপ্রেক্ষিতেই এবার তমলুক থানায় স্বতো:প্রণদিত মামলা পুলিশের।

এই বিষয় জেলা পুলিশ সূত্রে খবর, সোমবার শুভেন্দু অধিকারী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে জেলা পুলিশ সুপারকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করেন ও অন্যান্য পুলিশ কর্মীদেরও আক্রমণ করেন। আর তাই এসপি-কে হুমকি, পুলিশের ফোনে আড়িপাতার অভিযোগে শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা। পাশাপাশি বিপর্যয় মোকাবিলা আইনেও মামলা করা হয় পুলিশের তরফে। আর এবার ইতিমধ্যেই এই প্রসঙ্গে শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক চাপানোতরও।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.