দেশের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক কি বাংলাদেশের নাগরিক? জানতে চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি কংগ্রেস সাংসদের

Spread the love

দেশের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক কি বাংলাদেশের নাগরিক?

নিউজ ডেস্ক :-   জোর জল্পনা ,চলছে আলোচনা ,বাংলাদেশের গাইবান্ধা জেলায় নিশীথ প্রমানিকের জন্মভিটায় চলছে মিষ্টি বিতরণ ।

বিতর্ক উস্কে ট্যুইট কংগ্রেস সাংসদ রিপুন বরার। একাধিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরের উল্লেখ করে ট্যুইট করেছেন তিনি। ট্যুইটে কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ রিপুন বরা লিখেছেন, ‘একজন বিদেশি নাগরিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, বিষয়টি গভীর উদ্বেগের। তদন্ত করে বিষয়টি স্পষ্ট করতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছি।’

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের ভেলাকোপা গ্রামের কৃতি সন্তান নিশীত প্রামাণিক এখন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার নব নিযুক্ত স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। নিশীত প্রামাণিক বিধুভুষন প্রামানিক ও জয়ন্তী রানী ছোট ছেলে এবং গাইবান্ধার বিশিষ্ট শিল্পপতি গোপাল চন্দ্র বর্মন প্রামানিক উইন্টার কালেকশন লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সাধন বর্মন প্রামাণিক এর ভাতিজা।

নিশীত প্রমানিক এর বাবা ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশ থেকে ভারতের পশ্চিম বাংলার কোচবিহার জেলায় গিয়ে বসতি স্থাপন করে। নিশীত প্রমানিক সেই খানেই জন্ম গ্রহন করেন।
নিশীত প্রামাণিক লোকসভা নির্বাচন করে কোচবিহারের প্রায় ১৯ লক্ষ ৭৬ হাজার ভোটের মধ্যে ৮ লক্ষ ৭৬ হাজার ভোট পেয়ে এম পি নির্বাচিত হন।এর পরে তাকে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার নব নিযুক্ত স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নির্বাচিত করে । আর এই খুশিতে তার পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি গ্রামবাসী অনেক খুশি।
এই খুশিতে গ্রামে মিষ্টি বিতরণ করা হয় এবং আনন্দ উৎসব উদযাপন করছে পরিবার ও এলাকাবাসী।

প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া চিঠিতে রিপুন বরা লিখেছেন, বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে, নিশীথ প্রামাণিক বাংলাদেশি নাগরিক। তাঁর জন্মস্থান বাংলাদেশের গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি থানার হরিনাথপুর। তিনি কম্পিউটার নিয়ে পড়াশোনার জন্য এ দেশে আসেন। ডিগ্রি লাভের পর তিনি প্রথমে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। পরে বিজেপিতে যোগ দিয়ে কোচবিহারের সাংসদ নির্বাচিত হন ।

 

এ ব্যাপারে কোচবিহার তৃণমূলের জেলা সভাপতি পার্থপ্রতীম রায় বলেছেন, তিনি বিষয়টি সোশাল মিডিয়ায় প্রথম তুলেছিলেন। তারই ফলস্বরূপ রাজ্যসভা সাংসদ তদন্তের আর্জি জানিয়েছেন।তিনি বলেছেন, বিষয়টির খোলসা হওয়া প্রয়োজন।

অন্যদিকে, বিজেপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অভিযোগ করলেই তো হবে না। যাঁরা অভিযোগ করছেন, তাঁরা প্রমাণ দিন। পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেছেন, অভিযোগ করলেই তা প্রমাণ হয় না। সারবত্তা থাকলে মানুষের সামনে আনুন, অভিযোগ করে প্রচারের আলোয় এনে প্রচারের আলো টানতে চাইছেন।

তৃণমূল এর আগে আগে কোচবিহারের সাংসদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল। এবার প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো রিপুন বরার চিঠি ট্যুইট করে একই প্রশ্ন তুলেছেন ব্রাত্য বসু। বিষয়টিকে লজ্জাজনক বলে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর ট্যুইট, ‘ঠিক প্রশ্নই করেছেন রাজ্যসভার সাংসদ রিপুন বরা। একাধিক সংবাদ মাধ্যমের দাবি, নিশীথ প্রামাণিক বাংলাদেশের নাগরিক।কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগের আগে কি তাঁর কোনও তথ্য যাচাই হয়নি?! ভুললে চলবে না তাঁর বিরুদ্ধে থাকা একাধিক ফৌজদারি মামলার বিষয়টিও।’

রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেনের কটাক্ষ, ‘অবাক পৃথিবী, অবাক করলে তুমি’।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার রদবদলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে অমিত শাহর ডেপুটি হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয় নিশীথ প্রামাণিককে। এত গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় তুঙ্গে রাজনীতি। বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিকের প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

 

সৌজন্য :- ABP

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.