যোগীর বিরুদ্ধে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ যোগী সরকারের ‘এক সন্তান’ নীতি প্রত্যাহারের দাবি

Spread the love

খোদ হিন্দুত্ববাদীদের বিরোধিতার মুখে আদিত্যনাথ! – যোগী সরকারের ‘এক সন্তান’ নীতি প্রত্যাহারের দাবি বিশ্ব হিন্দু পরিষদের

নিউজ ডেস্ক :- যাঁরা জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করবেন তাঁরা বিশেষ সুবিধা পাবেন। পাশাপাশি গর্ভনিরোধক ব্যবস্থা আরও সহজলভ্য করা এবং গর্ভপাতের জন্য নিরাপদ পরিকাঠামো গড়ে তোলার দিকে নজর দেওয়া হবে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের জন্য এমনই এক জনসংখ্যা নীতির পথে হেঁটেছে উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার। কিন্তু শুরুতেই এ নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হল মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে। বিরোধী শিবির নয়, খোদ কট্টরবাদী হিন্দু সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদই যোগী সরকারের নয়া জনসংখ্যা নীতি নিয়ে আপত্তি তুলেছে। সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি অলোক কুমার সোমবার উত্তরপ্রদেশ আইন কমিশনের কাছে চিঠি পাঠিয়ে জনসংখ্যা নীতি থেকে ‘এক সন্তান’ অনুচ্ছেদ বাদ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। তাঁর মতে, ‘ওই নীতির নেতিবাচক প্রভাব পড়বে সমাজে।’

রাজ্যে ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে এবং জন্মহার ১ দশমিক ৭ শতাংশের নিচে আনতে নতুন জনসংখ্যা নীতি প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে যোগী সরকার। নয়া আইনের যে খসড়া বিল প্রকাশ হয়েছে, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই সমাজের বিভিন্ন অংশ আপত্তি তুলতে শুরু করেছে। রবিবার উত্তরপ্রদেশ সরকারের নয়া জনসংখ্যা নীতিকে স্বাগত জানালেও বিলের ৫ নম্বর ধারা নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিলেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কার্যকরী সভাপতি অলোক কুমার। ৫ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনও সরকারি কর্মচারি ও আধিকারিক যদি শুধুমাত্র একটি সন্তান জন্ম দেন, তাহলে তাঁকে বিশেষ ইনসেনটিভ দেওয়া হবে।’
ad

উত্তরপ্রদেশের আইন কমিশনকে পাঠানো চিঠিতে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কার্যকরী সভাপতি লিখেছেন, ‘চীনের কমিউনিস্ট সরকারও আশির দশকে এক সন্তান নীতি গ্রহণ করেছিল। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। ১-২-৪ পদ্ধতি কার্যত মুখ থুবড়ে পড়েছে। কোনও পরিবারের এক সন্তানের পক্ষে একই সঙ্গে বাবা-মা এবং দাদু-দিদা, ঠাকুরদা-ঠাকুরমা’র দায়িত্ব পালন ও দেখভাল করা সম্ভব নয়। কয়েক দশক বাদে নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে চিন সরকার এক সন্তান নীতি প্রত্যাহার করেছে। এক সন্তান থাকলে বাবা-মায়ের অধিক আদরে তার বিগড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। শুধু তাই নয়, সম্প্রদায়গত ক্ষেত্রে জনসংখ্যার ভারসাম্যও নষ্ট হবে।’ জনসংখ্যা নীতি থেকে তাই ‘এক সন্তান’ নিয়ে খসড়া প্রস্তাব রাখা হয়েছে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কার্যকরী সভাপতি।

 

সৌজন্য :- এখন খবর

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.