মায়ানমারে ” রোহিঙ্গা গণহত্যায় চুপ থাকা আন সান সু চি ” আটক,দেশ জুড়ে জরুরি অবস্থা জারি

Spread the love

আন্তজার্তিক ডেস্ক :- এবার আটক আং সান সুচি  মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী ক্ষমতা গ্রহণ করে দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করেছে। এর আগে বেসামরিক নেত্রী এবং রোহিঙ্গা হত্যার নায়িকা আং সান সু চিসহ সরকারিদলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের আটক করা হয়। নভেম্বরের নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে বেসামরিক প্রশাসনের সাথে সামরিক বাহিনীর কয়েক দিনের দ্বন্দ্বের প্রেক্ষাপটে সামরিক বাহিনী আজ এই পদক্ষেপ গ্রহণ করল।

সামরিক বাহিনীর মালিকানাধীন টেলিভিশনে এক ভিডিওবার্তায় বলা হয়, ক্ষমতা সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চিফ সিনিয়র জেনারেল মিন আং হ্লাইঙের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

গত বছর নভেম্বরের নির্বাচনে অং সান সুচির এনএলডি পার্টি সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে। কিন্তু সেনাবাহিনী নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ তোলে।

সোমবার নব-নির্বাচিত সংসদের প্রথম বৈঠক হবার কথা, কিন্তু সেনাবাহিনী অধিবেশন স্থগিত করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানায়।
রাজধানীতে সেনা টহল
বিবিসির দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া সংবাদদাতা জনাথান হেড জানিয়েছেন, রাজধানী নিপিড এবং প্রধান শহর ইয়ানগনের রাস্তায় রাস্তায় সেনাবাহিনী টহল দিচ্ছে।

বিবিসির বার্মিস সার্ভিস জানিয়েছে, নিপিডতে টেলিফোন এবং ইন্টারনেট লাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে।

সৈন্যরা দেশেটির বিভিন্ন প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীদের বাসভবনে গিয়ে তাদের আটক করে নিয়ে গিয়েছে বলে তাদের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।

এনএলডি মুখপাত্র মিও নয়েন্ট রয়টার্স সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট মিন্ট এবং অন্যান্য নেতাদের ভোরে আটক করা হয়।

”আমি জনগণকে বেপরোয়া কিছু না করার অনুরোধ করছি, আমি চাই তারা আইন মেনে চলবে,” মিও নয়েন্ট রয়টার্সকে বলেন।

এদিকে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের জো বাইডেন প্রশাসনের তরফ থেকে মায়ানমার এর সামরিক বাহিনীর ক্ষমতা দখলের ব্যাপারে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র মায়ানমারের সেনাবাহিনীকে এই পদক্ষেপের জন্য কঠোর পরিণতির হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.