এবার দীনেশ ত্রিবেদী রাজ্যসভা থেকে পদত্যাগ করলেন ,গন্তব্য কি বিজেপি

Spread the love

নিউজ ডেস্ক :- শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়দের পর এবার দীনেশ ত্রিবেদী । তৃণমূল )ছাড়লেন প্রাক্তন রেলমন্ত্রী তথা বারাকপুরের প্রাক্তন সাংসদ। শুক্রবার রাজ্যসভার সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিলেন তিনি। রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে তিনি জানান, দলে থেকে কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না, দমবন্ধ হয়ে আসছে। অন্তরাত্মার ডাকে সাড়া দিয়ে তিনি দলত্যাগের সিদ্ধান্তের কথা জানান। রাজনৈতিক মহলে জোর জল্পনা, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ, নির্ভরযোগ্য এই সৈনিকও পা বাড়াচ্ছেন বিজেপির পথেই।

 

লোকসভা আসনে তিনি বিজেপির অর্জুন সিংয়ের কাছে পরাজিত হন। কিন্তু তারপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশেষ উদ্যোগে তাকে তৃণমূলের হয়ে রাজ্যসভার সদস্য নির্বাচিত করা হয়।
দীনেশ ত্রিবেদী আদতে গুজরাতের মানুষ। তাই বিজেপি সংযোগ বা মোদি-অমিত শাহ সংযোগের কথা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তাই বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনের আগে তার হঠাৎ এই পদত্যাগ নিঃসন্দেহে বিব্রত করে তুলবে তৃণমূল কংগ্রেসকে।

শুক্রবার রাজ্যসভায় বিতর্ক চলাকালীন তৃণমূলের সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী বলেন, ”আমার রাজ্যে হিংসা হচ্ছে। কিন্তু এখানে কিছুই বলতে পারছি না। আমার দমবন্ধ হয়ে আসছে, কাজ করতে পারছি না।” এরপর তিনি আরও বলেন, ”আমাকে রাজ্যসভায় পাঠানোর জন্য দলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। কিন্তু রাজ্যে ঘটে চলা হিংসাত্মক কার্যকলাপ রুখতে কিছুই করতে পারছি না। আমার আত্মা বলছে, এখানে থেকে যদি কিছুই করতে না পারি, তাহলে এই পদ ছেড়ে দেওয়া উচিত।” যদিও বর্ষীয়ান তৃণমূল সাংসদের দাবি, তিনি বাংলার মানুষের জন্য কাজ করতে চান। প্রসঙ্গত, একদিন আগেই নরেন্দ্র মোদির একটি ভিডিও পোস্ট করে প্রধানমন্ত্রীকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছিলেন দীনেশ ত্রিবেদী। তারপরই জল্পনা উস্কে উঠেছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.