এবার শিবসেনা আসছে বাংলায় ,প্রার্থী দিবে ১০০ আসনে ,আসতে পারেন উদ্ধব ঠাকরে

Spread the love

নিউজ ডেস্ক :- এবার শিবসেনা আসছে বাংলায় প্রার্থী দিবে একুশে বিধানসভা ভোটে ,প্রায় ১০০ আসনে প্রার্থী দেওয়ার ঘোষণা । পশ্চিমবঙ্গকে পাখির চোখ করে ঝাঁপিয়েছেন বিজেপির রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপি তাদের শীর্ষ নেতৃত্বকে দিয়ে একের পর এক প্রচার কর্মসূচি পালন করে চলেছে রাজ্যে। এর পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গের মুসলিম অধ্যুষিত এলাকার বিধানসভা কেন্দ্রগুলিতে যৌথভাবে প্রার্থী দিতে চলেছে আব্বাস সিদ্দিকীর তৈরি হতে যাওয়া নতুন দল এবং আসাদউদ্দিন ওয়াইসির মিম। তাঁরা যদি মুসলিম ভোট কাটেন তাতে অবশ্যই বড় সুবিধা পাবে বিজেপি (bjp)। এবার কি তবে এর উল্টোটা ঘটাতে চেষ্টা করছে শিবসেনা? রবিবার শিবসেনার শীর্ষ নেতা সঞ্জয় রাউত ট্যুইট করে জানিয়েছেন, খুব শীঘ্রই বাংলায় আসছি। জয় হিন্দ, জয় বাংলা। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী তথা শিবসেনা সুপ্রিমো উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে বৈঠকের পর পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে গুরুতর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা।

জানা গিয়েছে উত্তর এবং দক্ষিণবঙ্গ মিলিয়ে রাজ্যের ১০০টি বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী দিতে চলেছেন তাঁরা। উল্লেখ্য বিজেপির সঙ্গে আড়াই দশকের বেশি সময় ধরে কেন্দ্রীয় সরকারে এবং মহারাষ্ট্রে শরিক ছিল শিবসেনা। তবে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন সেই ব্যাপারে মতভেদ হওয়ায় শিবসেনা ২০১৯ সালে বিজেপির সঙ্গ ছেড়ে কংগ্রেস এবং এনসিপিকে নিয়ে সরকার গঠন করে। সেইসঙ্গে কেন্দ্রের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে নেয় শিবসেনা। দু’দলের বিরোধ চরম আকার নেয়। তাই বাংলার নির্বাচনে শিবসেনা যখন এত বেশি আসনে প্রার্থী দাঁড় করাতে চলেছে, সেটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বিষয় বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। কারণ উদ্ধব ঠাকরে প্রকাশ্যে জানিয়েছেন তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সমর্থন করছেন। সেই সূত্রেই এমন সিদ্ধান্ত তাঁরা নিতে চলেছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

যদিও অতীতের পরিসংখ্যান বলছে পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভায় এবং লোকসভা নির্বাচনে শিবসেনা প্রার্থী দিলেও, তারা বলার মতো কিছুই করতে পারেনি। গত লোকসভা নির্বাচনে ১৫টি কেন্দ্রে তারা প্রার্থী দিয়েছিল। এছাড়া ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে শিবসেনা ১৮টি আসনে প্রার্থী দেয়। কিন্তু তারা একেবারেই সুবিধা করতে পারেনি বিধানসভা কিংবা লোকসভায়। মিম এবং আব্বাস সিদ্দিকীর নতুন দল যদি মুসলিম ভোট কাটতে পারে তাতে সুবিধা পাবে বিজেপি। উল্টোদিকে শিবসেনা যদি একইভাবে হিন্দু ভোটের একটা অংশ নিজেদের দিকে নিয়ে আসতে পারে, তবে অবশ্যই সমস্যায় পড়বে বিজেপি। এ প্রসঙ্গে শিবসেনার রাজ্য সম্পাদক অশোক সরকার প্রথম কলকাতাকে বলেন, ” শিবসেনা সুপ্রিমো উদ্ধব ঠাকরে কলকাতায় একটি সমাবেশ করবেন।

এছাড়া আদিত্য ঠাকরেও আসতে পারেন। তিনি আসলে দুটি সভা করবেন উত্তরবঙ্গ এবং দক্ষিণবঙ্গ মিলিয়ে। আমাদের দলের অন্যতম প্রধান নেতা সঞ্জায় রাউত এবং অনিল দেশমুখ বাংলায় প্রচারে আসবেন। আমরা 100 টি আসনে প্রার্থী দিতে চলেছি। কাল দিল্লি যাচ্ছি। পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে সবিস্তার কথা হবে।” অতীতে শিবসেনা পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে এত কেন্দ্রে কোনদিনও প্রার্থী দেয়নি। তবে বিজেপির সঙ্গে তাদের সম্পর্ক খারাপ হওয়ার পরই দেখা যাচ্ছে তারা গেরুয়া শিবিরের চরম বিরোধিতা করছে প্রতিটি ইস্যুতে। মূলত সেই কারণে তারা বাংলায় এত আসনে প্রার্থী দিয়ে তৃণমূলকে সুবিধা করে দিতে চাইছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। যদিও এ রাজ্যে শিবসেনার অস্তিত্ব নেই বললেই চলে। তাই উদ্ধব, আদিত্য,সঞ্জয় রাউতরা রাজ্যে এসে প্রচার করলে শিবসেনার পালে কিছুটা হলেও হাওয়া লাগে কিনা, সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছে ওয়াকিবহাল মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.