ছন্নছাড়া বিরোধী শিবির , নব্য তৃণমূল নেতাদেত নিয়ে বিপাকে বিজেপি , মমতার বিকল্প নাই স্বীকার বিজেপি নেতার  

Spread the love

 নিউজ ডেস্ক :- ছন্নছাড়া বিজেপি শিবির ,দিশেহারা নব্য তৃণমূলীদের নিয়ে অস্বস্থিতে বিজেপি ,এই রকম এক পরিস্থিতিতে মমতার বিকল্প নাই   কার্যত  স্বীকার করে নিলেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা ।    রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টেক্কা দেওয়ার মতো মুখ রাজ্য বিজেপিতে নেই, কোনো নেতাকে সামনে রেখেই মমতাকে হারানো যাবে না। অকপটে সে কথা স্বীকার করলেন বিজেপি বিধায়ক অনুপম হাজরা। বিভিন্ন চ্যানেলের দ্বারা সাম্প্রতিক সময়ে পরিচালিত বেশকিছু জনমত সমীক্ষায় দেখা গেছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বেশিরভাগ বাঙালি মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চায়। জনপ্রিয়তার নিরিখে রাজ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশেপাশেও নেই বিজেপি বা বিরোধি অন্য কোনো রাজ নেতা।

২০২১ সালে দেশের রাজনৈতিক ময়দানের সেরা লড়াই নিঃসন্দেহে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন। বাংলায় ঘাসফুল উপড়ে পদ্মফুল ফোটাতে উঠে পড়ে লেগেছে বিজেপি। কিন্তু মমতাকে টক্কর দেওয়ার মতো স্থানীয় কোনও নেতা এখনও নেই গেরুয়া শিবিরে। একথা বলছেন স্বয়ং বঙ্গ বিজেপির রাষ্ট্রীয় সচিব অনুপম হাজরা। তিনি জানিয়েছেন, একমাত্র সাফল্য আসতে পারে মমতার বিপক্ষে কৌশলে যদি মোদিকে খাড়া করা যায় বিজেপির মুখ হিসেবে।
অনুপমের মতে, রাজ্যে এমন কোনও নেতা নেই যাঁকে প্রোজেট করে তৃণমূল নেত্রীকে হারানো যায়, তাই প্রোজেক্ট করা হয়ওনি। ফোকাস করা হয়েছে, মমতা বনাম মোদি লড়াইতে। রাজ্যে যেমন মমতার ক্যারিশমা আছে, তেমন মোদির প্রভাব আছে একটা। এই ম্যাজিকেই ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে ১৮টি আসন দখল করেছিল বিজেপি। তবে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে সম্পূর্ণ ভিন্ন বিষয় গুলো নিয়ে লড়াই হতে চলেছে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে। তাই এক্ষেত্রে পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি, কেন্দ্রীয় গণতান্ত্রিক সংস্থাগুলির অপব্যবহার, বিতর্কিত কৃষি আইন এবং বর্তমান কৃষক আন্দোলন সহ নানা ইস্যুতে ব্যাকফুটে থাকা বিজেপি মোদি কে সামনে রেখে পশ্চিমবঙ্গের লড়াইয়ে কতটা সুবিধা করতে পারবে সেটা নিয়ে এখন ঘোর সংশয় রয়েছে খোদ গেরুয়া শিবিরেই

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.