আসানসোল সহ বাইশের প্রথম উপনির্বাচনে শূন্য পেল বিজেপি

Spread the love

ওয়েব ডেস্ক:-  ‘বিজেপির কিছু নেতার গালে সপাটে থাপ্পড় কষাল আসানসোল।’ নিজের পুরনো কেন্দ্রে নতুন দল তৃণমূলের বিরাট জয় নিয়ে মুখ খুললেন বাবুল সুপ্রিয় । আসানসোলে জয়ের ব্যবধানে বাবুল সুপ্রিয়র ২০১৯ সালের ব্যবধানকেও টপকে গিয়েছেন বিহারীবাবু শত্রুঘ্ন সিনহা। কিন্তু নিজের ‘রেকর্ড’ ভেঙে যাওয়ায় একেবারেই অখুশি নন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। উলটে উচ্ছ্বসিত। শত্রুঘ্নর জয়কে হাতিয়ার করেই বাবুল সুপ্রিয় বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ শানালেন।

আসানসোল একটা সময় ছিল বামেদের শক্ত ঘাঁটি। নয়ের দশক থেকে ২০১৪ পর্যন্ত টানা এই লোকসভা কেন্দ্রটি দখলে রেখেছিল বামেরা। কখনও হারাধন রায়, কখনও বিকাশ চৌধুরী কখনও বংশগোপাল চৌধুরী জিতেছেন এই কেন্দ্র থেকে। রাজ্যে পালাবদলের পর প্রথম লোকসভা নির্বাচন অর্থাৎ ২০১৪ সালে বামেরা নিশ্চিহ্ন হয়ে গেলেও তৃণমূল কেন্দ্রটিতে দাঁত ফোটাতে পারেনি। অপ্রত্যাশিতভাবে ৭০ হাজারের বেশি ভোটে আসনটি দখল করেন নেন বিজেপির বাবুল সুপ্রিয়। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে সেই ব্যবধান আরও বাড়িয়ে ১ লক্ষ ৯৭ হাজার করে ফেলেন বাবুল।

পশ্চিমবঙ্গের আসানসোল লোকসভা এবং বালিগঞ্জ বিধানসভার পাশাপাশি অন্য তিন রাজ্যের উপনির্বাচনেও হেরে গেল বিজেপি। বিহারে এনডিএ জোটের দখলে থাকা বিধানসভা আসনে হেরে গিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী। মহারাষ্ট্রের কোলহাপুর (উত্তর) এবং ছত্তীসগঢ়ের খৈরাগঢ় বিধানসভা আসনেও কংগ্রেসের কাছে পরাস্ত হয়েছে বিজেপি। সব মিলিয়ে ২০২২ সালের প্রথম স্বতন্ত্র উপনির্বাচন পর্বে নরেন্দ্র মোদীর দলের ঝুলি শূন্য!

বিহারে ২০২০ সালের বিধানসভা ভোটে বোচাহাঁ কেন্দ্রে এনডিএ জোটের ‘বিকাশশীল ইনসান পার্টি’ (ভিআইপি)-র প্রার্থী মুশাফির পাসোয়ান জয়ী হয়েছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে শূন্য হওয়া আসনটি এ বার ভিআইপি-কে ছাড়েনি বিজেপি। ফলে দু’দল আলাদা ভাবে লড়ে। ফল বলছে, সেখানে প্রায় সাড়ে ৪৮ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন প্রধান বিরোধী দল আরজেডি-র প্রার্থী। বিজেপি প্রায় ২৭ শতাংশ এবং ভিআইপি প্রায় ১৭ শতাংশ ভোট পেয়েছে।

ছত্তীসগঢ়ের খৈরাগঢ় আসনে ২০১৮-র বিধানসভা ভোটে জিতেছিল প্রয়াত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অজিত যোগীর দল জনতা কংগ্রেস ছত্তীসগঢ়। দ্বিতীয় স্থানে ছিল বিজেপি। এ বারও ত্রিমুখী লড়াইয়ে দ্বিতীয় হয়েছে পদ্ম-শিবির। সেখানে জয়ী হয়েছেন কংগ্রেসের প্রার্থী। কংগ্রেস প্রায় সাড়ে ৫৩ শতাংশ এবং বিজেপি ৪০ শতাংশ ভোট পেয়েছে সেখানে।

মহারাষ্ট্রের কোলহাপুর (উত্তর) বিধানসভা কেন্দ্রটি এ বার ভোট বাড়িয়ে পুনর্দখল করেছে কংগ্রেস। ২০১৯-এর বিধানসভা ভোটে সেখানে ৫১ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে জিতেছিলেন কংগ্রেসের চন্দ্রকান্ত পাটিল যাদব। তাঁর মৃত্যুতে খালি হওয়া আসনে এ বার চন্দ্রকান্তের স্ত্রী জয়শ্রীকে প্রার্থী করেছিল কংগ্রেস। ৫৪ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে জিততে চলেছেন তিনি। প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী পেয়েছেন প্রায় ৪৩ শতাংশ ভোট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.