বেহালায় ১৩২ নম্বর ওয়ার্ডে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রবীণ শিক্ষকদের নমস্কার করে সম্বর্ধনা, কো-অর্ডিনেটর সঞ্চিতা মিত্রের

Spread the love

বেহালায় ১৩২ নম্বর ওয়ার্ডে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রবীণ শিক্ষকদের নমস্কার করে সম্বর্ধনা, কো-অর্ডিনেটর সঞ্চিতা মিত্রের

পরিমল কর্মকার (কলকাতা) : শিক্ষক দিবসের দিন এক অভিনব কর্মসূচির মধ্য দিয়ে রবিবার (৫ আগস্ট) বেহালায় ১৩২ নম্বর ওয়ার্ডে প্রবীন শিক্ষকদের সম্বর্ধনা জ্ঞাপন করলেন এই ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর সঞ্চিতা মিত্র। বাড়ি বাড়ি গিয়ে ১৮ জন প্রবীণ শিক্ষকের পায়ে হাত দিয়ে নমস্কার করে তাদের সম্মান ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করলেন সঞ্চিতা মিত্র। সম্মাননা জ্ঞাপন করতে কো-অর্ডিনেটর নিজে শিক্ষকদের বাড়িতে এসেছেন শুনে আবেগে ও ভালোবাসায় অনেক শিক্ষকেরই চোখে জলের ধারা নেমে এলো। অনেক শিক্ষককেই বলতে শোনা গেল “সারা জীবন শিক্ষকতা করেও এমন সম্মান কোনোদিনও পাইনি….।” এই শিক্ষকদের বয়স ৭০ থেকে ৮৭-র কোটায়। এনারা সকলেই সঞ্চিতা মিত্রের দীর্ঘায়ু ও সাফল্য কামনা করেন বলে জানা গিয়েছে।

এপ্রসঙ্গে সঞ্চিতা মিত্র বলেন, শিক্ষকরাই সমাজের প্রকৃত মানুষ তৈরি করার মূল কারিগর। অথচ এই শিক্ষকরাই সমাজে সে অর্থে তেমন কোনো মর্যাদা পান না। তার উপর বয়সের ভারে অনেকেই বাড়ি থেকে বেরোতে পারেন না। তাই এই শিক্ষক দিবসের দিন তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করে তাদের কাছে আশির্বাদ চাইলাম, যাতে আগামী দিনগুলোতে তাদের উৎসাহ অনুপ্রেরণায় সমস্ত মানুষের পাশে থেকে সেবাকর্ম চালিয়ে যেতে পারি….।”

এদিন সঞ্চিতাদেবীর এই কর্মযজ্ঞে সহযোগিতায় ছিলেন ১৩২ নম্বর ওয়ার্ডের সমস্ত তৃণমূল কর্মীরা। জানা গিয়েছে, উত্তরীয়, গোলাপ ফুল, মিষ্টির প্যাকেট, স্যানিটাইজার, মাস্ক, গ্লাভস ও মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের দেওয়া “সম্মাননা-পত্র” ইত্যাদি দিয়ে সম্বর্ধিত করা হয়েছে ১৮ জন প্রবীন শিক্ষককে। সঞ্চিতা মিত্রের এই প্রয়াসে এলাকার বাসিন্দারা তাঁর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন বলে জানা গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.