মোদীর থেকে বহুগুণ বেশি জনপ্রিয় দিদি – পাঁচ অঙ্কে বিজেপির জয়ের সম্ভাবনায় জল ঢেলে দিলেন পিকে

Spread the love

ওয়েব ডেস্ক :- বাংলা রাজনীতি আজ বড় সরগরম .   দিন দিন রাজনীতির  পারদ ক্রমশ চড়ছে ।এই বার মুখ খুললেন বাংলার রাজনীতিতে বহূল চর্চিত  এক নাম পিকে । বিজেপি বাংলার ভোটে নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তাকে ব্যবহার করতে চাইলেও, এ রাজ্যে মোদীর থেকে অনেক বেশি জনপ্রিয় দিদি। বাংলায় যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদীর লড়াই হচ্ছে সে কথা স্বীকার করে নিয়ে এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনই মন্তব্য করেছেন ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর। একইসঙ্গে তিনি এ-ও বলেন, পাঁচ অঙ্কে লড়াইয়ে নেমেছে বিজেপি।

অন্য রাজ্যের সঙ্গে বাংলার রাজনীতির তুলনা দিতে গিয়ে পিকে বলেছেন, এই নির্বাচন ব্যতিক্রমী। কেননা রাজ্যের শাসকদলকে চ্যাালেঞ্জ করেছে কেন্দ্রের শাসকদল। যা গত ৩০-৩৫ বছরে হয়নি। যেসময় রাজ্যে বামেরা ক্ষমতায় ছিল, কেন্দ্রে ক্ষমতায় থাকা কংগ্রেস তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করেনি। এবারই প্রথম যেসময় একটি আঞ্চলিক দলকে চ্যালেঞ্জ করেছে দেশের শাসক দল। তারা যে কোনও মূল্যে নির্বাচন জিততে চায় বলে মন্তব্য করেছেন প্রশান্ত কিশোর।

পিকের মতে, বাংলায় বিজেপি লড়াই করছে পাঁচ অঙ্কে। একটি হচ্ছে মেরুকরণের রাজনীতি। দ্বিতীয়ত, তারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বদনাম করতে এবং তাঁর বিরুদ্ধে ব্যাপক ক্ষোভ তৈরি করতে চেয়েছিল। তৃতীয়ত, তৃণমূল রাজনৈতিক দল হিসেবে ধসে পড়েছে, তা নিশ্চিত করতে সমস্ত উপায় প্রয়োগ করেছিল। চতুর্থত, তফশিলি সম্প্রদায়ের সমর্থন। আর পঞ্চমত, তারা প্রধানমন্ত্রী মোদীর জনপ্রিয়তার ওপরে নির্ভর করে লড়াই করছে।

১০ বছর ক্ষমতায় থাকায় প্রতিষ্ঠান বিরোধিতার হাওয়া প্রসঙ্গে পিকে বলেন, প্রতিষ্ঠান বিরোধিতার হাওয়া রয়েছে, এটা বলার অপেক্ষা রাখে না। বেশ কিছু জায়গায় তা বেশই রয়েছে। কিন্তু যদি পুরো বাংলার কথা বলা যায়, তাহলে দেখা যাবেন সাধারণ মানুষ স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে। কিন্তু তাঁরা দিদিকে এখনও বিশ্বাস করেন। এটা দিদির নির্বাচন, তাই তৃণমূল তাঁর জায়গা ধরে রাখতে পারবে বলেই মনে করছেন তিনি।

বাংলার রাজনীতিতে বড় প্রাসঙ্গিক বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.