সাহিত্যের মহোৎসব ১ম সাগরদিঘী সাহিত্য উৎসব

Spread the love

সাহিত্যের মহোৎসব
১ম সাগরদিঘী সাহিত্য উৎসব

  নিজস্ব সংবাদদাতা, সাগরদিঘী:

নবীন প্রজন্মের হাত ধরে ফের সাহিত্য চর্চা শুরু সাগরদিঘীতে,
বহু বছর পর সাগরদিঘীর বুকে সাহিত্য চর্চা ফিরে এলো। এ এক অভিনব ফের বলা যায়। সবুজ বার্তা পত্রিকা
মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘী থেকে গত দু’বছর ধরে প্রকাশিত হচ্ছে, রহমতুল্লার সম্পাদনায় এই পত্রিকার ব্যানারে ইতিমধ্যে একাধিক সাহিত্যানুষ্ঠান করেছেন রহমতুল্লাহ, কিন্তু এবছর সবুজ বার্তা সংবাদ পত্রিকার দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিকে সামনে রেখে, শুভ সূচনা হলো ১ম সাগরদিঘী সাহিত্য উৎসবের। ৬ই নভেম্বর রবিবার মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘী ব্লক অফিসের কমিউনিটি হলে বেলা ১১ টার সময় সাগরদিঘী সাহিত্য উৎসব উদ্বোধন করেন সাগরদিঘীর
সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক শ্রী সুরজিৎ চ্যাটার্জী, বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক মজিবুর রহমান সহ বিশিষ্ট লেখক তৈমুর খান।

 


পাশাপাশি সবুজ বার্তা দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তথা সাগরদিঘী সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক সুরজিৎ চ্যাটার্জী, অনুষ্ঠানে সভাপতির আসন অলংকৃত করেন বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক মজিবুর রহমান। এদিনের সাহিত্য উৎসবে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ১৭৫ জন কবি -সাহিত্যিক, প্রাবন্ধি সহ স্বেচ্ছাসেবীর উপস্থিত ছিলেন। সভাপতি মজিবুর রহমান জানান আজকের এই অস্থির সময়ে সাংস্কৃতিক চর্চা ভীষণ প্রয়োজন, তরুণ ছেলে মেয়েরা যেভাবে সাংস্কৃতিক চর্চায় এগিয়ে চলেছে সাংস্কৃতিক চর্চা, সাহিত্য চর্চার ক্ষেত্রটাকে অবলম্বন করে সেটা বৃহত্তর সমাজের জন্য খুবই কার্যকর একটা আয়োজন।
সাগরদিঘীতে ১ম সাহিত্য উৎসব হচ্ছে যেনে অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন সবুজ বার্তা পত্রিকার সম্পাদক রহমতুল্লাহ কে। এদিন সাহিত্য, শিক্ষা ও সমাজ সেবা ক্ষেত্রে গুমানী দেওয়ান স্মৃতি সম্মান দেওয়া হয় ২০ জন ব্যক্তিকে। পাশাপাশি ১০০ জন লেখক লেখিকাদের স্মারক সম্মান দেওয়া হয়। প্রত্যেক কবিদের কবিতা পাঠের পর সবুজ পরিবেশ গড়তে চারা গাছ বিতরণ করা হয়। বিশেষ অতিথিদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সাহিত্যিক কাজী আমিনুল ইসলাম, বিশিষ্ট প্রবন্ধিক দেবনারায়ণ মোদক, বিশিষ্ট লেখিকা ড. দেবযানী ভৌমিক, ছোট গল্পকার কুণাল কান্তি দে, তামিজুদ্দিন মল্লিক, তায়েদুল ইসলাম, রবিন দত্ত, মনুরুজ্জামান এছাড়াও চারণ কবি গুমানীদেওয়ান এর নাতি সজল দেওয়ান উপস্থিত ছিলেন। পত্রিকার সম্পাদক রহমতুল্লাহ জানান সাগরদিঘী সাহিত্য উৎসব মহোৎসবের রূপ নিয়েছে যা ইতিহাসের পাতায় পালক যোগ করবেন বলে মনে করি। আমরা এই উৎসব প্রতি বছর করে যাবো।
কবিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাধন কুমার রক্ষিত,নাসির ওয়াদেন, তানজিলাল সিদ্দিকী, গোলাম কাদের, মোঃ ইমরান হোসেন, দীনমহম্মদ সেখ, সাইফুল ইসলাম,। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সুচারু রূপে সঞ্চালনায় ছিলেন মুর্শিদ সারওয়ার জাহান, সাহলি চক্রবর্তী, সোমনাথ কর ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.