ঠাকুরপুকুরে ১২৫ নম্বর ওয়ার্ডে জমা জলের খবর করতে গেলে সাংবাদিকদের হেনস্থা, অভিযোগ সাংবাদিকদের

Spread the love

ঠাকুরপুকুরে ১২৫ নম্বর ওয়ার্ডে জমা জলের খবর করতে গেলে সাংবাদিকদের হেনস্থা, ঘটনাস্থলে পুলিশ এলেও গ্রেফতার করেনি অভিযুক্তকে, অভিযোগ সাংবাদিকদের

পরিমল কর্মকার (কলকাতা) : বেশ কিছুদিন আগে যে বৃষ্টি হয়েছিল, সেই জমা জলে ঠাকুরপুকুরে ১২৫ নম্বর ওয়ার্ডের কলিতলায় এখনও রাস্তাঘাট জলমগ্ন, দুর্বিসহ অবস্থার মধ্যে রয়েছেন বাসিন্দারা…এমনই খবর পেয়ে কয়েকজন সাংবাদিক মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) পৌঁছে গিয়েছিলেন কালিতলা এলাকায়। কিন্তু সেখানে ছবি তুলতে গিয়ে তারা বাঁধার মুখে পড়েন। নিজেকে তৃণমূল কর্মী বলে পরিচয় দিয়ে সাগর সর্দার নামের এক ব্যক্তি সাংবাদিকদের ছবি তুলতে বাধা দেয়, সেইসঙ্গে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও হুমকী দেয়…. এমনই অভিযোগ। এমনকি সাগর সর্দার নামের ওই ব্যক্তি, যিনি নিজেকে স্থানীয় তৃনমূল কাউন্সিলর ঘনশ্রী বাগের ঘনিষ্ঠ বলেও দাবি করেন। পাশাপাশি সাংবাদিকদের গায়ে হাত তোলারও অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। এব্যাপারে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে ঠাকুরপুকুর থানায় অভিযোগ গেলে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে, তবে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়নি বলে অভিযোগ।

অভিযোগে প্রকাশ, ১২৫ নম্বর ওয়ার্ডের কালিতলা এলাকায় সামান্য বৃষ্টি হলেই পথঘাট জলে ডুবে এলাকা জলমগ্ন হয়ে যায়। বাসিন্দাদের চলাফেরা করা দুঃসহ হয়ে ওঠে, পাশাপাশি তারা চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েন। কিছুদিন আগে যে বৃষ্টি হয়েছিল তাতে হাঁটু সমান জল জমে যায়। সেই জল এখনও সরেনি বলে ক্ষোভ এলাকার বাসিন্দাদের। উল্লেখ্য, বেহালা-ঠাকুরপুকুর এলকায় সমগ্র জায়গা থেকে জল সরে গেলেও এই কালিতলা অঞ্চল থেকে এখনও জল না সরায় এলাকার বাসিন্দাদের ক্ষোভ স্থানীয় তৃনমূল কাউন্সিলর ঘনশ্রী বাগের বিরুদ্ধে।

এই খবর পেয়ে ইন্ডিয়া নিউজের সাংবাদিক জয়দেব গুহ সহ অন্যান্য মিডিয়ার সাংবাদিকেরাও সেখানে উপস্থিত হন। দীর্ঘদিন ধরে জমা জলে জলমগ্ন রাস্তাঘাটের ছবি তুলতে গেলে সাংবাদিকদের বাঁধা দেয় সাগর সর্দার ও তার লোকজন। অভিযোগ, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও সাংবাদিকদের গায়ে হাত তোলার অভিযোগও ওঠে সাগর সর্দার নামের ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি জানিয়ে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে ঠাকুরপুকুর থানায় অভিযোগ গেলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এলেও অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়নি বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় এলাকার বাসিন্দারা ক্ষুব্ধ বলে জানা গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.