তিন তালাক ইস্যুতে খ্যাতি অর্জনকারী নাজিয়া এলাহী খানকে “ভুয়ো আইনজীবি” হিষাবে কলকাতা পুলিশ গ্রেপ্তার করল

Spread the love

নিউজ  ডেস্ক . কলকাতা:- তিন তালাক ইস্যুতে খ্যাতি অর্জনকারী নাজিয়া এলাহী খানকে বৃহস্পতিবার কলকাতা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে, আইনজীবী হিসেবে জালিয়াতি ও ছদ্মবেশের অভিযোগে। তিনি তিন তালাক মামলার অন্যতম আবেদনকারী ইশরাত জাহানের আইনজীবী ছিলেন।

এমনকি নাজিয়া খান ইশরাত জাহানের জন্য ভারতের সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিলেন। তার সাথে প্রায় ১৫০ জন মুসলিম মহিলা জাফরান পার্টিতে যোগ দেন। স্পষ্টতই, তিনি মহিলাদের জন্য লড়াই করছেন, সে মুসলিম হোক বা হিন্দু বা অন্য কোন সম্প্রদায় এবং মহিলাদের জন্য বেশ কয়েকটি এনজিও পরিচালনা করেন।

কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারের প্রশংসা করে নাজিয়া বলেছিলেন যে এই আইন মুসলিম সম্প্রদায়ের মহিলাদের ন্যায়বিচার দেবে।

পরে, যখন জাহান ভারতীয় জনতা পার্টিতে (বিজেপি) যোগ দেন, নাজিয়াও দলে যোগ দিয়েছিলেন।  তাঁকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ‘ভারতী মাতা কি জয়’ স্লোগান দিয়ে দলের পতাকাও তুলে দেন।

তিন তালাক মামলার পাঁচজন আবেদনকারীর মধ্যে ইশরাত ছিলেন একজন। তার স্বামী ২০০১ সালে দুবাই থেকে ফোনে তিনবার ‘তালাক’ শব্দটি উচ্চারণ করে তাকে তালাক দিয়েছিলেন।

সেইসময় ইশরাত জাহান  ওএই ভুয়ো আইনজীবি নাজিয়া খান তিন তালাক ইস্যুতে পরিচিত মুখ ছিলেন ।

এবার ভুয়ো আইনজীবি হিষাবে গ্রেফতার হলেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, মামলা মিটিয়ে দেওয়ার নামে লক্ষ লক্ষ টাকা তোলার অভিযোগ রয়েছে ধৃত নাজিয়া ইলাহি খানের  বিরুদ্ধে। বাগুইআটি থানায় নাজিয়ার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ করেন সন্দীপ আগরওয়াল নামে এক ব্যক্তি। তাঁর দাবি, নাজিয়া তাঁর বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা মিটিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। সেই সূত্র ধরেই বিজেপি নেত্রী প্রায় ৬ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সন্দীপ। কিন্তু মামলার নিষ্পত্তি হয়নি বলেই দাবি তাঁর। এর পরই পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। গত বছর গিরিশ পার্ক থানায়  মামলা করেন সন্দীপ।

এর পরই তদন্তে নেমে বার কাউন্সিল, বার অ্যাসোসিয়েশনে চিঠি দেয় পুলিশ। তদন্ত করে পুলিশ নিশ্চিত হয় নাজিয়া ইলাহি খান আইনজীবী নন। এদিকে পুলিশে অভিযোগ জমা পড়ার পর থেকে নাজিয়া বিভিন্ন রাজ্যে পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। নাজিয়ার ফেসবুক প্রোফাইল বলছে, সম্প্রতি একাধিকবার ত্রিপুরা গিয়েছিলেন তিনি। একাধিক বিজেপি নেতার সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতা চোখে পড়ার মতো। এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে রাজারহাট থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে গিরীশ পার্ক থানার পুলিশ।

সামনে এসেছে একাধিক প্রতারণা চক্র। এবার ফের ভুয়ো আইনজীবী পরিচয় দিয়ে টাকা হাতানোর খবর সামনে এল। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় মুখ পুড়েছে বিজেপিরও। কারণ, বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরের পতাকা হাতে ছবি রয়েছে ধৃত নাজিয়া ইলাহি খানের।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.