রাজ্যে লকডাউন, জানেন আইন ভাঙলে কী শাস্তি হতে পারে? আসুন দেখে মেওয়া যাক

Spread the love

নিউজ ডেস্ক:- করোনা নিয়ে গোটা দেশ জুড়ে চলছে ,চুড়ান্ত সতর্কতা ! শেষ কয়েকদিনে ভারতে যে হারে করোনা (coronavirus) আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে তাতে দুশ্চিন্তা কয়েকগুন হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সোমবার বিকেল ৫ টা থেকে পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। নির্দেশিকা জারির পরই প্রশাসনের তরফে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে যে, লকডাউনের (lockdown) নিয়ম ভাঙা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ফলত আইন ভাঙলে শাস্তি অনিবার্য। জেনে নিন আইন ভাঙলে কোন ধারায় কী সাজা।

আইন অনুযায়ী, জোরপূর্বক কেউ যদি লকডাউনের নীতি অমান্য করেন সেক্ষেত্রে তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ১৮৮, ২৬৯, ২৭০, ২৭১ ধারায় মামলা হবে। সরকারি নির্দেশ অমান্য করলে প্রযোজ্য হবে ১৮৮ ধারা। ২৬৯ ধারা সংক্রামক ব্যাধি ছড়ানোর বিরুদ্ধে, যা জামিন অযোগ্য। ২৭০ নম্বর ধারাও জামিন অযোগ্য, জীবনের পক্ষে বিপজ্জনক এমন সংক্রমণ ব্যাধি ছড়ানোয় এই ধারা প্রযোজ্য। এতে ২ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। কোয়ারেন্টাইনের আইন ভাঙলে বলবৎ হবে ২৭১ ধারা।

রবিবারই নবান্নের তরফে নির্দেশিকা জারি করে পশ্চিমবঙ্গেও লকডাউনের সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। সোমবার বিকেল ৫ টা থেকে শুক্রবার ২৭ মার্চ রাত ১২ টা পর্যন্ত জারি থাকবে লকডাউন। পরবর্তীতে কী হবে সেই সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে বৈঠকে। লক ডাউন ঘোষণার পরই রাজ্য সরকারের তরফে সকলকে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যতটা সম্ভব অন্যের থেকে দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলা হয়েছে। বিদেশ ফেরত এরাজ্যে বাসিন্দাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি, লকডাউনের নিয়ম ভাঙলে শাস্তি হবে বলেও জানানো হয়েছে নির্দেশিকায়। প্রসঙ্গত, শুধু ভারত নেই করোনা আতঙ্কে কাঁটা গোটা বিশ্ব। প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.