রোড শো’য়ে বেহালা পূর্বের বিজেপি প্রার্থী পায়েলকে দেখতে ভীড় হলেও নেই দেওয়াল লিখন- ব্যানার-ফ্লেক্স-হোর্ডিং

Spread the love

রোড শো’য়ে বেহালা পূর্বের বিজেপি প্রার্থী পায়েলকে দেখতে ভীড় হলেও চোখে পড়লো না দেওয়াল লিখন- ব্যানার-ফ্লেক্স-হোর্ডিং

পরিমল কর্মকার (কলকাতা) : ইতিমধ্যেই বিধানসভা নির্বাচন শুরু হয়ে গিয়েছে, প্রথম দফার নির্বাচন শেষ হয়েছে শনিবার (২৭ মার্চ)। এইদিনই বেহালা পূর্বের বিজেপি প্রার্থী চিত্রাভিনেত্রী পায়েল সরকার নির্বাচনী প্রচারে বেহালায় একটি রোড শো’য়ে অংশ নেন। চিত্রতারকাকে দেখতে ভীড় উপচে পড়লেও ঠাকুরপুকুরের কদমতলা থেকে জেমস লং সরণি ধরে বেহালা রায় বাহাদুর রোড পর্যন্ত এই দীর্ঘ পথ যাত্রায় রাস্তার আশে-পাশে চোখে পড়লো না পায়েলের নামে তেমন কোনও দেওয়াল লিখন-ব্যানার-ফ্লেক্স-হোর্ডিং ইত্যাদি কিছুই। অভিযোগ, নির্বাচনী প্রচারে এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী অথবা তার হয়ে প্রচারের জন্য জেলা বিজেপি খরচ-খরচা করতে আগ্রহী নয়….. যার জন্য প্রচারের এই হাল বেহালা পূর্ব কেন্দ্রের প্রার্থী পায়েলের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিজেপি কর্মী বলেন, এই কেন্দ্রে প্রচারের জন্য কোনও টাকা-পয়সা খরচ করতে চাইছে না বিজেপি প্রার্থী পায়েল সরকার ও জেলা বিজেপি। এই প্রতিবেদকের (সাংবাদিকের) এক প্রশ্নের উত্তরে ওই কর্মী বলেন, “শুনেছি প্রচারের জন্য বিধানসভা পিছু কমপক্ষে ৩০/৪০ লক্ষ টাকা করে “স্যাংসন” হয়েছে, অথচ টাকাগুলো গেল কোথায় ? তবে টাকাগুলো কি নেতারা পকেটস্থ করে বসে আছেন…. এটাই বুঝতে পারছি না…..।” এনিয়ে ঘোর সংশয়ে বিজেপি কর্মীরা।

অপরদিকে এই কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী রত্না চ্যাটার্জীর প্রচারে ভরে গিয়েছে বেহালা পূর্ব কেন্দ্রের সমগ্র এলাকা। দেওয়াল লিখন থেকে শুরু করে ফ্লেক্স-হোর্ডিং কিছুই বাকি নেই তার প্রচারে। এমনকি সিপিএম প্রার্থী সমিতা হর চৌধুরীর প্রচারেও ছেয়ে গেছে এলাকা। বিজেপি প্রার্থী পায়েলের প্রচারের এই হাল দেখে বিজেপি’র অধিকাংশ কর্মীই মনমরা। এমন কি তারা সরাসরি অভিযোগ তুলেছেন পায়েল ও বিজেপি’র জেলা নেতৃত্বের বিরুদ্ধে।

এদিন পায়েলের রোড শো’য়ে অংশ নেওয়া অনেকেই অভিযোগের সুরে বললেন, “সিনেমা আর্টিস্ট দেখতে যে ভীড়টা দেখছেন সেটা বিজেপি’র ভোটের বাক্সে প্রতিফলিত হবে বলে মনে হচ্ছে না…..।” আবার কেউ কেউ বললেন, “প্রচার না থাকলে কি জেতা যায় …?”

এই দিন এই নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন বিজেপি প্রার্থী পায়েল সরকার, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, বিজেপি জেলা সভাপতি শঙ্কর শিকদার, এই বিধানসভার কো-অর্ডিনেটর চন্দ্রভান সিং, ক্লাব সেলের কনভেনর তরুণ দাস (রাজু), জিতেন পাল, ভক্তি মণ্ডল, শীর্ষেন্দু ব্যানার্জী, তপন ঘোষ প্রমুখ বিজেপি নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.