বেহালা পূর্বে তৃনমূলের রত্নার বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী চিত্রতারকা পায়েল, রত্নার জয় এখন সময়ের অপেক্ষা, দাবি এলাকার মানুষের

Spread the love

বেহালা পূর্বে তৃনমূলের রত্নার বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী চিত্রতারকা পায়েল, রত্নার জয় এখন সময়ের অপেক্ষা, দাবি এলাকার মানুষের

পরিমল কর্মকার (কলকাতা) : বেহালা পূর্বে আজ (রবিবার) বিজেপি তাদের প্রার্থীর নাম ঘোষনা করলো। এই কেন্দ্রে তৃনমূল প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তারা প্রার্থী করেছে চিত্রতারকা পায়েল সরকারকে। বেহালা পূর্বে বিজেপির সাংগঠননিক শক্তি ততটা শক্ত-পোক্ত নয়, তার উপর বেহালার বুকে একজন আনকোরা চিত্রতারকাকে প্রার্থী করায় বিজেপি কর্মীরা অনেকটাই চাপের মধ্যে পড়ে গেলেন বলে ধারণা রাজনৈতিক মহলের। যারফলে তৃনমূল প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের জয় অনেকটাই সহজ হয়ে গেল, এমনকি রত্নার জয় এখন শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করছেন এলাকার মানুষ।

প্রসঙ্গত: বেহালা পূর্বে রত্নার বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী হতে পারেন তার স্বামী শোভন চট্টোপাধ্যায়, এমনটাই শোনা যাচ্ছিল। এলাকার মানুষ মনে করছিলেন ভোটার ময়দানে স্বামী-স্ত্রীর জোর লড়াই তারা প্রত্যক্ষ করবেন। কারণ ১৯৮৫ সালে জাতীয় কংগ্রেসের টিকিটে বেহালায় প্রথম কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে একের পর এক নির্বাচনের রণাঙ্গনে শোভন অপরাজেয়। তারপর তৃনমূলের জন্মলগ্ন থেকেই তিনি মমতার স্নেহের পাত্র কানন (শোভনের ডাকনাম)। এরপর কলকাতা পুরসভার এম আই সি, মেয়র, মন্ত্রী, তৃনমূলের দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা সভাপতি…. এইসব গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সামলেছেন শোভন। এমনকি ২০১১ ও ২০১৬ সালে তিনি বেহালা পূর্বের বিধায়কও।

বছর দুয়েক আগে মমতার সঙ্গে মন কষাকষিতে তিনি বিজেপিতে যোগদান করেন। সেই সময় থেকেই স্থানীয় বিজেপি সমর্থিত মানুষ ও কর্মীদের আশা ছিল বেহালা পূর্বে বিজেপি’র হয়ে শোভন পুনরায় বিধায়ক নির্বাচিত হবেন। সেই মতো ইতিমধ্যেই শোভন-বৈশাখীকে সভা-সমিতিতে এনে বেহালায় ভোটের হাওয়া গরম করছিল বিজেপি। সভা-সমিতি গুলিতে শোভন নিজেও দাবি করছিলেন বেহালা পূর্বে দল তাকে প্রার্থী করলে তিনি তার স্ত্রী রত্নাকে শোচনীয়ভাবে পরাস্ত করবেন। কার্যক্ষেত্রে এখন তা আর সম্ভব হলোনা।

উল্লেখ্য, এই কেন্দ্রে বিজেপি এক আনকোরা নায়িকাকে প্রার্থী করায় পোড় খাওয়া রাজনীতিবিদ শোভনের স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল। উল্টে এই সিনেমা আর্টিস্টকে জেতাতে বিজেপি কর্মীদের হিমসিম খেতে হবে। আর এতেই তৃনমূলের রত্নার জয় অনেকটাই সহজসাধ্য হয়ে গেল বলে মনে করছেন বিজেপি’র স্থানীয় কর্মীরা।

এব্যাপারে বেহালা পূর্বের তৃণমূল প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায় বলেন, “সিনেমা আর্টিস্টরা শুটিং নিয়েই ব্যস্ত থাকেন, জনগণের সেবা করার সময় কোথায় তাদের ? তাছাড়া বিজেপি-র ওই প্রার্থী রাজনীতির ময়দানে একেবারেই নতুন …।” এক প্রশ্নের উত্তরে রত্না তাঁর নিজের জয়ের ব্যাপারে পূর্ণ আত্মবিশ্বাসী, এমনটাই জানান রত্না চট্টোপাধ্যায়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.