দুষ্কৃতীদের ধরতে গুলিতে প্রাণ দিলেন ৮ জন পুলিশ কর্মী যোগীর রাজ্যে

Spread the love

অয়ন বাংলা ওয়েব ডেস্ক:-    কুখ্যাত একজন সমাজবিরোধীকে ধরতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের চোরা গুলিতে প্রাণ দিলেন ৮ জন পুলিশ কর্মী। গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার রাতে উত্তরপ্রদেশের কানপুর সাক্ষী থাকে এই ভয়াবহ ঘটনার। জানা যাচ্ছে, ভয়াবহ এই শুটআউটের ঘটনায় মৃত্যু হয় কানপুরের ডেপুটি পুলিশ সুপার দেবেন্দ্র মিশ্র, ৩ জন সাব-ইন্সপেক্টর এবং ৪ জন কনস্টেবলের।

এবার যোগীর রাজ্যে দৃষ্কৃতিদের ধরতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে মরতে হল আট জন পুলিশ কে।
দুষ্কৃতীদের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে নিহত ৮ পুলিশকর্মী। বৃহস্পতিবার গভীররাতে ঘটে ঘটনাটি। এরপরেই এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশ কর্মীদের মৃত্যুতে কড়া পদক্ষেপ করা হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ।

ঘড়ির কাঁটায় ঠিক রাত ১টা। উত্তরপ্রদেশের কানপুরের চৌবেপুরে কুখ্যাত দুষ্কৃতী বিকাশ দুবেকে ধরতে নির্ধারিত জায়গায় যায় পুলিশ। এরপর রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষা। পুলিশ যখন অপরাধীকে ধরবে বলে অপেক্ষা করছে, তখনই আচমকা একটি বাড়ির ছাদ থেকে পুলিশের উপর এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে দুষ্কৃতীরা। পুলিশ কর্মীরাও অপেক্ষা না করে গুলি চালাতে থাকেন দুষ্কৃতীদের লক্ষ্য করে। তবে দুষ্কৃতীদের অতর্কিত হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান কানপুরের ডেপুটি পুলিশ সুপার দেবেন্দ্র মিশ্র-সহ আট পুলিশকর্মী। এই গুলির লড়াইতে আরও চারজন পুলিশকর্মী আহত হন। তাঁদের মধ্যে একজনের অবস্থা বর্তমানে আশঙ্কাজনক।

পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত বিকাশ দুবের বিরুদ্ধে থানায় ঢুকে রাজ্যের মন্ত্রীকে খুন করার অভিযোগ রয়েছে৷ তাই বৃহস্পতিবার রাতে বিকাশের আস্তানার খবর পেয়ে তাকে গ্রেপ্তার করতে অপারেশন চালায় কানপুরের বিশেষ পুলিশ টিম। গুরুত্বপূর্ণ অপারেশনের নেতৃত্বে ছিলেন খোদ ডেপুটি পুলিশ সুপার। পুলিশের অনুমান, সবরকম গোপনীয়তা রক্ষা করলেও সম্ভবত এই পুলিশি অভিযানের খবর আগেই পেয়ে গিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। তাই তারা আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল। পুলিশের গাড়ি গলিতে ঢুকতে দেখেই গুলি চালাতে শুরু করে তারা। পুলিশ কর্মীরা তার প্রত্যুত্তর দিলেও শেষরক্ষা করতে পারেনি। খবর পেয়ে পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিশ বাহিনী৷
কিন্তু ততক্ষণে আট পুলিশকর্মী শেষ।

ইতিমধ্যেই বিকাশ ও তার দলকে গ্রেপ্তার করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে পুলিশ। ঘটনার পরেই দুষ্কৃতীরা যাতে কোনওভাবেই পালাতে না পারে তার জন্য উত্তরপ্রদেশের সীমান্ত সিল করে দেওয়া হয়েছে৷ গোটা এলাকাজুড়ে শুরু হয়েছে চিরুনি তল্লাশি৷ খোঁজ চলছে বিকাশের গ্রামের বাড়িতেও। শুক্রবার সকালেই ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান উত্তরপ্রদেশের এডিজি আইনশৃঙ্খলা প্রশান্ত কুমার। এই সংঘর্ষের ঘটনায় ও পুলিশ কর্মীদের মৃত্যুতে রীতিমতো স্তম্ভিত উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন। অপরাধীদের কড়া শাস্তি হবে বলে নিশ্চিত করেছে যোগী সরকার।

এই নিয়ে গোটা রাজ্যে শুরু হয়েছে চুড়ান্ত তল্লাসি। পুলিশ প্রশাসন ও সদা সতর্ক ।

 

উত্তরপ্রদেশ পুলিশ শুক্রবার সকালে এক বাসাংবাদিক বৈঠকে জানায়, চৌবেপুর থানার অন্তর্গত ডিকরু গ্রামে বিকাশ দুবে নামে এক কুখ্যাত অপরাধীকে ধরতে বিশেষ অভিযান চালায় পুলিশ। খুন,জখম, রাহাজানি সহ অন্তত ৬০ টিমামলায় অভিযুক্ত বিকাশ।পুলিশ নির্দিষ্ট লক্ষে এগোতে শুরু করলে রাতের অন্ধকারে একটি বাড়ির ছাদ থেকে পুলিশকে লক্ষ করে শুরু হয় গুলিবৃষ্টি। উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল এইচসি অবস্থির ধারণা অভিযান সম্পর্কে আগাম খবর পেয়েই পুলিশের ওপর হামলা চালায় বিকাশ এবং তার সঙ্গীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.