নৃশংশতা কাকে বলে ঈদের জামা কিনে দেওয়ার নাম করে দুই মেয়েকে খুন করে নদীতে ভাসিয়ে দিল বাবা!

Spread the love

ঈদের জামা কিনে দেওয়ার নাম করে দুই মেয়েকে খুন করে নদীতে ভাসিয়ে দিল বাবা!

 

আন্তজার্তিক  ডেস্ক :- ঈদের নতুন পোশাক কিনে দেওয়ার নাম করে দুই মেয়েকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়েছিল বাবা। কিন্তু নির্মম ভাবে খুন করে নদীতে ভাসিয়ে দিল দুই মেয়ের মৃতদেহ। ঘটনাটি বাংলাদেশের গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে তিস্তা নদীতে। পলাতক অভিযুক্ত বাবা। রবিবার বিকেলে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের পাড়াসাদুয়ার চর এলাকা থেকে দুটি ভাসমান মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

 

নিহতরা হল ১১ বছর বয়সী হাসি আক্তার ও ৯ বছরের খুশি আক্তার। জানা গেছে, প্রায় ১৩ বছর আগে কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার খামার বজরা গ্রামের আদুরী বেগমকে বিয়ে করেন হামিদুল ইসলাম। মেয়ে জন্মের পর তাদের পরিবারে কলহ দেখা দেয়। একপর্যায়ে তিন বছর আগে স্ত্রীকে তালাক দেন তিনি। এরপর মায়ের সঙ্গেই দাদুর বাড়িতে থাকতো হাসি-খুশি। পাঁচদিন আগে ঈদের জামা কিনে দেওয়ার কথা বলে দুই মেয়েকে নিজ বাড়িতে আনেন বাবা। তিনদিন বাবার সঙ্গে থাকার পর তিনজনকেই আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না।

স্থানীয়রা জানায়, রবিবার দুপুরে হরিপুর ইউনিয়নের পাড়াসাদুয়ার চর এলাকায় তিস্তা নদীর ধারে লাশ দুটি ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পরে লাশ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ। হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাফিউল ইসলাম সরকার জিমি বলেন, দুই মেয়েকে হত্যা করে হামিদুল পালিয়ে গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রতিবেশীরাও এমনটিই সন্দেহ করছেন। সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম বলেন, দু-তিনদিন আগে দুই শিশুকে হত্যার পর লাশ নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিষয়টি তদন্ত চলছে। লাশ দুটি উদ্ধার করে গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

সৌজন্য :- bbp news

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.