নেতাজীর জন্মদিনে তাল কাটল মঞ্চে উঠতেই ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি, ভিক্টোরিয়ায় বক্তব্য রাখলেন না ‘অপমানিত’ মমতা

Spread the love

 

নিউজ  ডেস্ক:- তারকাখচিত অনুষ্ঠানের সূচনার পরই তাল কাটল। নেতাজির জন্মজয়ন্তীতে ভিক্টোরিয়ার মঞ্চে ‘অপমানিত’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোনও মন্তব্য না রেখেই মঞ্চ ছাড়লেন মুখ্যমন্ত্রী।

ঠিক কী ঘটনা ঘটল? নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সংগীতানুষ্ঠানের পরই মঞ্চে বক্তব্য রাখতে আমন্ত্রণ জানানো হয় মুখ্যমন্ত্রীকে। কিন্তু মমতা মঞ্চে উঠতেই দর্শকাসন থেকে উড়ে আসে জয় শ্রীরাম ধ্বনি। আর তাতেই মেজাজ হারান মমতা। “এটা কোনও রাজনৈতিক মঞ্চ নয়। আমি মনে করি এভাবে আমন্ত্রণ জানিয়ে বেইজ্জত করা উচিত নয়। সেই জন্যই আমি আর একটি কথাও এখানে বলব না। তবে কলকাতায় এই অনুষ্ঠান আয়োজন করায় আমি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই।” একথা বলেই মঞ্চ থেকে নেমে যান তিনি।

নেতাজির জন্মদিন উপলক্ষে এদিন ভিক্টোরিয়ার অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দু’জনে একসঙ্গেই প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সময়ও পাশাপাশি বসেছিলেন মমতা-মোদী। বিভ্রাট ঘটল কিছুক্ষণ পরই।

মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে বক্তব্য রাখার জন্য আহ্বান করতেই দর্শকাসন থেকে উঠল ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান। স্বাভাবিকভাবেই তাতে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হন মমতা। মঞ্চে উঠে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মোদীর সামনেই।

তাঁর পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বক্তব্য রাখতে মঞ্চে উপস্থিত হলেও একইভাবে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ওঠে। তবে সঙ্গে সঙ্গে পালটা ‘জয় হিন্দ’ ধ্বনি তুলে ঘটনার মোড় ঘুরিয়ে দেন মোদি।

মঞ্চে উঠে মমতা বলেন, ‘এটা সরকারি অনুষ্ঠান, কোনও রাজনৈতিক দলের অনুষ্ঠান নয়।’ তিনি আরও বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারকে ধন্যবাদ যে তাঁরা কলকাতায় এরকম একটি অনুষ্ঠান করেছেন। কিন্তু, এভাবে কাউকে আমন্ত্রণ করে অপমান করা উচিৎ নয় বলে মন্তব্য করেছেন মমতা। একথা বলেই মঞ্চ ছাড়েন তিনি।

সৌজন্য :- সংবাদ প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.