বেহালা পূর্বে তৃনমূলের টিকিট পেতে পারেন রত্না, অন্যদিকে বিজেপি প্রার্থী শোভন…স্বামী- স্ত্রীর জোর লড়াই দেখতে চলেছেন বেহালার মানুষ

Spread the love

বেহালা পূর্বে তৃনমূলের টিকিট পেতে পারেন রত্না, অন্যদিকে বিজেপি প্রার্থী শোভন…স্বামী- স্ত্রী জোর লড়াই দেখতে চলেছেন বেহালার মানুষ

পরিমল কর্মকার (কলকাতা) : আজ তৃনমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হচ্ছে। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখতে কোমর বেঁধে ভোটের ময়দানে নামতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপিও ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে লড়াই দিতে হেভিওয়েট নেতাদের প্রার্থী করতে চলেছে। এরই মধ্যে রাজ্যের মানুষ ভোটের ময়দানে বেহালায় স্বামী-স্ত্রীর জোর লড়াই দেখতে চলেছেন বলে ইঙ্গিত মিলেছে।

প্রসঙ্গত: আজ (শুক্রবার) তৃণমূল ও বিজেপির প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হচ্ছে। জানা গিয়েছে ২৯৪ টি কেন্দ্রেই এই দুই দলের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হবে। সূত্রের খবর, বেহালা পূর্বে তৃণমূলের টিকিট পেতে পারেন রত্না চ্যাটার্জী। অন্যদিকে বিজেপি’র টিকিটে বেহালা পূর্বের প্রার্থী হতে পারেন এই কেন্দ্রেরই প্রাক্তন বিধায়ক শোভন চট্টোপাধ্যায়। সংবাদমাধ্যমের দৌলতে স্বামী-স্ত্রী এই দুজনের পারিবারিক বিবাদের কথা এখন বহুল চর্চিত…. আর এই নিয়েই বেহালা তথা রাজ্যের রাজনীতি এখন সরগরম।

উল্লেখ্য, অভিনেতা উত্তমকুমারের সঙ্গে রাজনীতিবিদ শোভনের জীবনযাপনের ক্ষেত্রে অনেকটাই মিল দেখতে পাচ্ছেন রাজ্যের মানুষ। উত্তমকুমার যেমন তাঁর স্ত্রী গৌরী দেবীকে ছেড়ে অভিনেত্রী সুপ্রিয়া দেবীর সঙ্গে নিবিড় বন্ধুত্ব গড়ে তুলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন। ঠিক তেমনই অধ্যাপিকা বৈশাখী বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বন্ধুত্ব নিয়ে বহু ঝড় বয়ে গেছে শোভনের সংসারে। অশান্তির জেরে শোভন নিজের বেহালার বাড়ি ছেড়ে উঠেছেন গোলপার্কের ফ্ল্যাটে। এমনকি শোভন তার স্ত্রী রত্নার বিরুদ্ধে ডিভোর্সের মামলাও দায়ের করেছেন। মামলাটি আলিপুর আদালতে বিচারাধীন।

বৈশাখীর সঙ্গে সরল মনে বন্ধুত্ব করতে গিয়ে রাজনীতির উচ্চাঙ্গণ থেকে শোভনকে ক্ষমতাচ্যুত হতে হয়েছে….. যার ইতিহাস রাজ্যের মানুষের কাছে অজানা নয়। শোভনের অভিযোগ ছিল তাঁর স্ত্রী রত্না স্বেচ্ছাচারী। শোভনের টাকায় পুরুষ বন্ধুদের  সঙ্গে নিয়ে  ব্যবসা করতে গিয়েছিলেন রত্না। অন্যদিকে রত্নার অভিযোগ, বৈশাখীর প্রেমে হাবু-ডুবু খেয়ে শোভন সংসার ছেড়েছেন, এমনকি রাজনৈতিক কেরিয়ারও শেষ করেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে তৃনমূলের টিকিটেই বেহালা পূর্ব থেকে জয়ী হয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তারপর বেহালার ইতিহাসে “বৈশাখী বিতর্কে” বহু জল গড়িয়েছে চট্টোপাধ্যায় পরিবারে। এমনকি রাজনীতির রণাঙ্গনেও তৃণমূল ছেড়ে বছর দুই আগে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শোভন। যার জেরে শোভন ও রত্নার মধ্যে এখন সাপে-নেউলে সম্পর্ক…. এমনটাই রটনা। তাই ভোটের ময়দানে রত্নাকে প্রার্থী করে বেহালা পূর্বের প্রাক্তন বিধায়ক শোভনকে পরাস্ত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ তৃণমূল। অন্যদিকে বেহালা তথা দক্ষিণ ২৪ পরগনার দক্ষ সংগঠক শোভনকে মাঠে নামিয়ে যোগ্য জবাব দিতে তৎপর বিজেপি।

বেহালায় লড়াইয়ের ময়দানে এই দুই প্রতিযোগীকে ঘিরে অত্যুৎসাহী বেহালার মানুষ…. যেন ইষ্টবেঙ্গল আর মোহনবাগানের শিল্ড ফাইন্যাল। তবে বেহালার একই ময়দানে (কেন্দ্রে) এই দুই প্রতিযোগীকে দল (তৃণমূল ও বিজেপি) মনোনয়ন দেয় কিনা সেটাই আজ (শুক্রবার) চূড়ান্ত হতে চলেছে…. অপেক্ষায় রাজ্যের মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.