দক্ষিণ কলকাতায় ফুটবল প্রতিযোগিতায় প্রকাশ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বিজেপির

Spread the love

বিজেপির দক্ষিণ কলকাতা জেলা ক্লাব সেলের ফুটবল প্রতিযোগিতায় প্রকাশ্যে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, অকথ্য হুমকী ও অপমান জেলা সভাপতিকে

পরিমল কর্মকার (কলকাতা) : শুক্রবার (১৩ আগস্ট) বেহালায় কেএফআর মাঠে বিজেপির দক্ষিণ কলকাতা জেলা ক্লাব সেল আয়োজিত একটি ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এই প্রতিযোগিতা উপলক্ষে এদিন অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু, জেলা সভাপতি শংকর শিকদার ও বিজেপি’র স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। এই খেলাকে কেন্দ্র করে মাঠে বিজেপি’র গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে হেনস্থা ও অপমান করা হয় বিজেপি’র জেলা সভাপতি শংকর শিকদারকে।

ঘটনায় প্রকাশ, বিজেপির দক্ষিণ কলকাতা জেলা সভাপতি শংকর শিকদার মঞ্চে উঠে অতিথির আসনে বসতেই তার বিরোধী গোষ্ঠীর একশ্রেণীর উগ্র কর্মী শংকরবাবুর সঙ্গে অভদ্র আচরণ ও বচসা শুরু করেন বলে অভিযোগ। হৈ হুল্লোর ও চেঁচামেচির মধ্যেই তারা শংকর শিকদারকে মঞ্চ থেকে নেমে যাওয়ার জন্য অকথ্য ভাবে হুমকী দিতে থাকেন। ফুটবল প্রতিযোগিতার মূল উদ্যোক্তা ক্লাব সেলের কনভেনর তরুণ দাস (রাজু) পরিস্থিতি শান্ত করতে হিমসিম খান। বিজেপি দলের নিজেদের মধ্যেই গন্ডগোল বাঁধায় মাঠের আশে-পাশে কিছু তৃণমূল ও অন্য রাজনৈতিক দলের সমর্থকেরা তড়িয়ে তড়িয়ে ঘটনাটি উপভোগ করতে থাকেন। তবে দলেরই লোক হয়ে দলের সভাপতিকে প্রকাশ্যে যারা অপমান করলেন এবং খেলার মাঠের সুষ্ঠ পরিবেশকে যারা কলুষিত করলেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে চলেছে বিজেপি’র জেলা ও রাজ্য নেতৃত্ব, বিজেপি সূত্রে এমনটাই খবর।

জেলা সভাপতি শংকর শিকদার বলেন, “ঘটনাটি অনভিপ্রেত। ক্লাব সেলের কনভেনর তরুণ দাস (রাজু) বহু সামাজিক কর্মকাণ্ডে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে চলেছেন। ওর এই ভূমিকায় দলের নিচুতলার কয়েকজন কর্মী ইর্ষান্বিত। তাই এই খেলাটিকে কেন্দ্র করে তরুণ দাস যাতে পাদপ্রদীপের আলোকে আসতে না পারেন, তারই একটা চক্রান্ত করে আমাকে হেনস্থা করা হয়েছে। দলের সামান্য কয়েকজন কর্মী এই ফুটবল প্রতিযোগিতাকে বানচাল করার ষডযন্ত্র করেছিল, আমাকে অপমান করে এদিন তারই বহিঃপ্রকাশ ঘটালো…..।”

এই ঘটনার জন্য দায়ী কে ? এমনই এক প্রশ্নে শংকর বাবু বলেন, সৈকত ব্যানার্জী নামে এক ব্যক্তি। তিনি প্রকাশ্যে আপনাকে মঞ্চ থেকে নেমে যাওয়ার হুমকী দিলেন উপরন্তু অভদ্র আচরণ করলেন….. তার বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নিচ্ছেন ? শংকর বাবুর সপ্রতিভ উত্তর, সংবাদমাধ্যমে এখনই কিছু বলছি না, তবে শীঘ্রই জানতে পারবেন…..।” শংকর শিকদারের কথায় বোঝা গেল সৈকত ব্যানার্জীর বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিতে চলেছে দল….. অন্ততঃ এমনটাই খবর গোপন সূত্রের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.